কোটা বিরোধী আন্দোলনে

পড়াশোনা নষ্ট করে কোটা বিরোধী আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই

পড়াশোনা নষ্ট করে ছেলেমেয়েদের কোটা বিরোধী আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (৭ জুলাই) গণভবনে বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এ দাবি করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোটা বন্ধ করা হয়েছিল। কিন্তু হাইকোর্টের রায়ে বহাল হয়েছে। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে পড়াশোনা নষ্ট করে ছেলেমেয়েরা আন্দোলন করছে। হাইকোর্টের রায় এটার বিরুদ্ধে এভাবে আন্দোলন করা, এটাতো সাবজুডিস, কারণ আমরা সরকারে থেকে কিন্তু এভাবে কথা বলতে পারি না। হাইকোর্ট রায় দিলে সেখানে (সমাধানও) হাইকোর্ট থেকে আবার আসতে হবে। কিন্তু আজকে আন্দোলনের নামে যেটা করা হচ্ছে, পড়াশোনার সময় নষ্ট করা। এটার কোনো যৌক্তিকতা আছে বলে আমি মনে করি না।

তিনি বলেন, হাইকোর্টের রায় আমরা সব সময় মেনে নেই। কিন্তু আমরা দেখলাম এখন কোটাবিরোধী আন্দোলন আবার গড়ে তোলার চেষ্টা হচ্ছে। ছেলেমেয়েরা পড়াশোনা নষ্ট করে এখন কোটাবিরোধী আন্দোলন করছে। সেখানে মেয়েরাও আন্দোলন করছে। এখানে আমার একটা প্রশ্ন, যারা এর আগে কোটাবিরোধী আন্দোলন করেছিল, তারা কতজন পাবলিক সার্ভিস কমিশনে পরীক্ষা দিয়েছিল, আর কতজন পাস করেছিল সেটা বের করা দরকার।

কোটা বাতিলের জন্য আন্দোলন করায় লেখাপড়ার ক্ষতি হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আমরা কোটা বাতিল করেছিলাম। কিন্তু এতে লাভ কী হলো। অনেক মেয়ে চাকরি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। অনেক জেলার মানুষও বঞ্চিত হয়েছে। এরকমই একজন মামলা করেছে।”

এসময় পেনশন আন্দোলন নিয়েও কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজনীতিবিদদেরও সর্বজনীন পেনশন স্কিমে যুক্ত হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন পুনর্বহালের দাবিতে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছেন। সে আন্দোলন রাজধানী থেকে এবার ছড়িয়ে পড়ছে সারাদেশে। আজ রবিবার সারাদেশে অবরোধ কর্মসূচি পালিত হবে, শিক্ষার্থীরা যার নাম দিয়েছেন ‘বাংলা ব্লকেড’।

কর্মসূচি অনুযায়ী রবিবার বিকাল ৫টা থেকে শাহবাগ মোড় ছাড়িয়ে সায়েন্স ল্যাব, চানখাঁরপুল, নীলক্ষেত, মতিঝিলসহ রাজধানীর প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অবস্থান নেবেন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোর শিক্ষার্থীরা। একইসঙ্গে সারাদেশের মহাসড়কগুলোতে স্থানীয় কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেবেন।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের রাজনৈতিক বন্ধু ভারত, উন্নয়নের বন্ধু চীন : কাদের

Check Also

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়ার নির্দেশ

অনির্দিষ্টকালের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ বুধবার (১৭ জুলাই) দুুপুরে এ …