সাজা পাবে ব্রাজিল

দুর্নীতি করেছে আবেদ আলীর ছেলে, আর সাজা পাবে ব্রাজিল?

ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার ফুটবল নিয়ে এদেশে উন্মাদনার শেষ নেই। দুই দলের সমর্থকদের মাঝে কথার লড়াই তো নিয়মিতই চলে, ফিফা ওয়াল্ড কাপ অথবা কোপা আমেরিকা টুর্নামেন্ট এলে সেটা মারামারির পর্যায়ে চলে যায়। চলতি কোপা আমেরিকা থেকে ব্রাজিল এর বিদায়ের পর দলটির সমর্থকেরা এমনিতেই মনোঃকষ্টে আছেন। তার ওপর দুর্নীতিবাজ বাবা-ছেলের কাণ্ডে ব্রাজিল সমর্থকেরা আছেন বিব্রতকর অবস্থায়।

বিসিএসসহ ৩০টি নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বিপিএসসির চেয়ারম্যানের সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী জীবন এবং তার ছেলে সৈয়দ সোহানুর রহমান সিয়ামকে। এরপরই সোহানুরের একটা ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সেই ছবিতে ব্রাজিলের জার্সি পরিহিত অবস্থায় দেখা যাচ্ছে দুর্নীতিতে জড়িত এই যুবককে।

প্রশ্নফাঁসের জড়িত থাকার অভিযোগে ইতিমধ্যে ছেলেসহ গ্রেপ্তার হয়েছেন সৈয়দ আবেদ আলী জীবন। গ্রেপ্তারের পর প্রশ্নফাঁস করে কত টাকা কামিয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, প্রশ্ন ফাঁস করে যত টাকা কামিয়েছি তা খরচ করে ফেলেছি আল্লাহর রাস্তায়।

সৈয়দ আবেদ আলীর ছেলে সোহানুরের এই ছবি শেয়ার করে ব্রাজিল সমর্থকদের ট্রোল করছেন আর্জেন্টিনা সমর্থকরা। তাই হলুদ শিবির বেশ বিপদেই আছে। অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন যে, দুর্নীতিবাজদের দায়-দায়িত্ব কেন সকল ব্রাজিল সমর্থককে নিতে হবে? একজন লিখেছেন, ‘দুর্নীতি করবে ওরা, আর সাজা পাবে ব্রাজিল?’

আরেক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘ছাত্রলীগ যেহেতু ওর দুর্নীতির দায় নেয়নি। ব্রাজিলও ওর দুর্নীতির দায় নেবে না। ব্রাজিল সমর্থকদের পক্ষ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হলো।’ এছাড়া অনেকেই আর্জেন্টিনার জার্সি পরিহিত অন্যায়কারীদের ছবি পোস্ট করে জবাব দেওয়ারও চেষ্টা করছেন।

এর আগে প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়ার পর ছাত্রলীগের ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদকের পদ থেকে সৈয়দ সোহানুর রহমান ওরফে সিয়ামকে সোমবার (০৮ জুলাই) অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। সোহানুর রহমান সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলীর ছেলে। প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় আবেদ আলীও গ্রেপ্তার হয়েছেন।

চেয়ারম্যানের সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী জীবনের নিজ বাড়ি মাদারীপুরের ডাসারের বালিগ্রাম ইউনিয়নের পশ্চিম বোতলা গ্রামে। তিনি তাঁর নিজ নামে এই গ্রামে গড়ে তুলেছে বিলাসবহুল আলিশান বাড়ি ও মসজিদসহ সম্পদের পাহাড়। ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে তাঁর ফ্লাটসহ একাধিক ভবন রয়েছে বলে তথ্য আসছে। নিজ বাড়ির পাশেই সরকারি জমি দখল করে গরুর ফার্ম তৈরি করেছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। গৌরনদীর খাঞ্জাপুরেও রয়েছে তার একটি বাড়ি। সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটায় সান মেরিনা নামে বিলাসবহুল হোটেলে রয়েছে শেয়ার। এছাড়া পরিবারের সদস্যরা ব্যবহার করেন একাধিক দামি বিলাসবহুল গাড়ি। নামে বেনামে রয়েছে কোটি কোটি টাকার জমি। বিসিএস পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসসহ বিভিন্ন দপ্তরে করতেন দালালী বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আরো পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর: হুয়াওয়ের সঙ্গে নগদ এর চুক্তি

Check Also

অনলাইন জুয়া বেড়েছে, নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন- সিআইডি

অনলাইন জুয়া বেড়েছে, নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন- সিআইডি

অনলাইন জুয়া (গ্যাম্বলিং ) নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের …