কেরানীগঞ্জে এক নারীকে জর্দান পাঠানোর কথা বলে অপহরন ,পাঁচলাখ টাকা মুক্তিপন দাবি, আটক-১

ঢাকার কেরানীগঞ্জ মডেল থানার নজরগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা মরিয়ম (৩৫) নামের এক নারীকে কামরাঙ্গীরচর এলাকার এক নারী দালাল কানিজ ফাতিমা লায়লা জর্দান পাঠানোর কথাবলে অপহরন করে। পরে মেয়ের মোবাইল ফোনে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে অপহরনকারী চক্র।

বুধবার সকাল ১১টায় তিন লাখ টাকা চুক্তিতে পাসপোর্ট সহ মরিয়মকে রাজধানীর একটি ম্যানপাওয়ার অফিসের কথা বলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে মরিয়ম বুধবার রাতে বাসায় না ফিরলে এবং মোবাইল ফোন বন্ধ থাকলে মরিয়মের মেয়ের জামাই সোহাগ ঘটনার বর্ননা দিয়ে প্রথমে একটি জিডি দায়ের করে। গতকাল বৃহস্পতিবার অপহৃত মরিয়মের মেয়ে সম্পার মোবাইলে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তি দাবি করে।

বুধবারের দায়েরকৃত ঐ জিডির সুত্র ধরে মডেল থানার এস আই রফিকুল ইসলাম বৃহস্পতিবার দুপুরের কামরাঙ্গীরচর থেকে অপহরনে জড়িত থাকা নারী দালাল কানিজ ফাতেমা লায়লাকে (৪৫) আটক করে। এবং তিনজনকে আসামি করে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় অপহরন মামলা দায়ের করে।
ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানায় মরিয়ম অপহরনের সব ক্লু পাওয়া গেছে। আজ রাতের মধ্যেই মরিয়মকে উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

এ.এইচ.এম সাগর।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,কেরানীগঞ্জে ভাম্যমান আদালতের খাদ্যে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে [sharethis-inline-buttons]

Check Also

কেরানীগঞ্জে সুজন বাহিনীর ভয়ে চার বছর এলাকা ছেড়ে থাকছেন বলে অভিযোগ বীর মুক্তিযোদ্ধার

কেরানীগঞ্জের কোন্ডা ইউনিয়নে কান্দাপাড়া গ্রামে সুজন বাহিনীর ভয়ে প্রায় চার বছর নিজের বাপ দাদার বসতবাড়ি …

error: Content is protected !!