বুড়িগঙ্গা নদীর দুই পাড় দখলমুক্ত করার তৃতীয় ধাপে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে বিআইডাব্লিউটিএ

বুড়িগঙ্গা নদীর দুই পাড় দখলমুক্ত করার তৃতীয় ধাপের প্রথম দিনের মত উচ্ছেদ কাজ শুরু করছেন বিআইডব্লিউটিএ। গতকাল মঙ্গলাবর সকল ১০ টাায় কামরাঙিরচর এলাকাার ব্যাটারীঘাট থেকে শুরু করে বাালুরঘাট পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেন বিআইডাবিব্লউটিএ । এ সময় জনগনের হট্রোগোল করতে চাইলে বিআইডাব্লিউটিএ কর্মকর্তারা পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা নেন। উচ্ছেদ অভিযানটি একটানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত পরিচালনা করেন বিআইডাবলিউটিএ ।

এ সময় বিআইডাব্লিটিএর বুলডেজার একের পর অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে ঘুড়িয়ে দেন। তৃতীয় ধাপের প্রথম দিনে বিআইডাব্লিটিএ প্রায় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচেছদ করেন। উচ্ছেদ হওয়া অভিযানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে একটি বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল আইয়ের গোডাউন,স্টিলের কারখানা, ৩য় তলা তারাবাতি (আতশবাজি)কারখানাসহ প্রায় ছোট-বড় ২০-২৫টি কারখানা এবং কাঁচাপাঁকা টিনসেডঘরসহ প্রাড়াই শতাধিক বস্তিবাড়ি।
গতকাল মঙ্গলবার কামরাঙিরচর এলাকার ব্যাটারীঘাট থেকে শুরু করে বাালুরঘাট পর্যন্ত উচ্ছেদ হওয়া ভুক্তভোগিরা দাবী করেন, আমরা যদি দোষী হই সরকার আমাদের শাস্তি প্রদান করুক। আর আমাদের যদি কাগজপত্র ঠিক থাকে। আর সরকারের যদি আমাদের এ জায়গা দরকার হয় তাহলে আমাদের ক্ষতি পুরন দেওয়ার ব্যবস্থা করুক। আমরা গরিব মানুষ। কোন রকম এই জায়গায় কয়েকটি টিন সেড ঘর তৈরী করে পরিবার পরিজন বসবাস করছি। আমরা স্বল্প আয়ের মানুষ। সরকার আমাদের একটি ব্যবস্থা না করে এভাবে তুলে দিলে পরিবার-পরিজন নিয়ে রাস্তায় নামা ছাড়া কোন উপায় থাকবে না।
বিআইডাব্লিউটিএর এ উচ্ছেদ অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে স্থানীয় বাসিন্দা নুর হোসেন, হাজি আলমাস, আলী আকবরসহ অনেকেই তারা বলেন, বিআইডাব্লিউটিএ যখন নদীর জায়গার অবৈধ দখল উচ্ছেদ করছেন তখন এ জায়গাগুলো ফেলে না রেখে দ্রুত এখানে কোন কিছু করা দরকার,তা না হলে ফের কয়েকদিন পর ক্ষমতার দাপটে দখল হয়ে যাবে। আবার কেউ কেউ ববলছেন বিআইডাব্লিউটিএ কর্মকর্তারা নদীর পারে গরীব মানুষেরা যে জায়গাগুলো অবৈধভাবে দখল করে রেখেছিল তা উদ্ধার করলেন। কিন্তু যারা ধনী মানুষ নদীর জায়গা দখর করে রেখেছে। তাদেরগুলোতে দৃশ্যমান রয়েছে এখনো। সেগুলোকেও উচ্ছেদ করা হউক।
বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক (ঢাকা বন্দর)এ. কে. এম আরিফ উদ্দিন জানান,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ দেশের সকল খাল-নদদীর জায় অধৈভাবে বেদখল হওয়া সম্পত্তির উচ্ছেদ এর মাধ্যমে উদ্ধার এর সৌন্দর্য ফিরিয়ে দিতে হবে নপাশাপাশি নদী খনন করে নদী নাব্যতাও ফিরিয়ে আনতে হবে। আমরা সে লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছি। বুড়িগঙ্গা নদীর পারে গড়ে উঠা কিদার েিমডিকেল কলেজও কি ভাঙ্গা হবে সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যেহেতু প্রতিষ্ঠানটির যদি বৈধ কাগজপত্র থাকে তাহলে তাদেরকে আমরা পরামর্শ দিবো সরকারের কাছ থেকে অধিগ্রহন করে জায়গা ডিনতে না হলে আমরা আমাদের কাজ করে যাবো। বুড়িগঙ্গা নদীর দুই পাড় দখলমুক্ত করার তৃতীয় ধাপের প্রথম দিনে বিআইডব্লিউটিএ উচ্ছেদ আরো উপস্থিত ছিলেন বিআইডাব্লিটিএর চেয়ারম্যান কমডোর এম মোযাম্মেল হক, বিআইডাব্লিটিএর এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রে মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, কামরাঙিরচর থানা ও নৌ পুলিশ এবং প্রায় শতাধিক লেবার।

 

এ.এইচ.এম.সাগর

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ঈদ উপহার নিয়ে মানুষের দোয়ার দোয়ারে কামরুল হাসান রিপন

৬৭ ও ৬৮ নং ওয়ার্ডের ১০০০ পরিবারকে ঈদ উপহার দিলেন কামরুল হাসান রিপন স্টাফ রিপোর্টার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!