হারিয়ে যাওয়া কেনিয়া ক্রিকেট টিমের গল্প

৫০ ওভারের একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় একটা সময় পুরো দাপট নিয়ে খেলতো কেনিয়া ক্রিকেট দল। দলটি আইসিসির সদস্যভুক্ত দেশসমুহের মধ্য খুব শক্তিশালী দল হিসাবেও  পরিচিত ছিলো।

 হঠাত করেই আজ বিলুপ্তি ঘটেছে তার। মনে নেই সেই স্টিভ টিকলো ও থমাস উদয়,মরিচ উদাম্বের মত তারকাদের।

 

১৮৯৯ সালে কেনিয়ার মোম্বাসায় প্রথম খেলা শুরু করে দলটি।

পরে সমগ্র দেশে ছড়িয়ে পরে।

সে সময় দলের সদস্য সহ উকেট রক্ষকও গাছের বাকল পরে মাঠে নামতো।

১৯৫১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে কেনিয়ার যাত্রা শুরু হয়।

তখন তারা তাঞ্জানিয়া বর্তামান টাঙ্গানিকা এবং উগান্ডা মধ্যে নিয়মিতভাবে খেলতো।

এরপর ১৯৫৩ সালে কেনিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েসোন গঠিত হয়।

তারপর ১৯৫৮ সালে দক্ষিন আফ্রিকা সফরে কেনিয়া খেলতে আসে এবং দুইটি ম্যাচে জয় লাভ করে কেনিয়া ক্রিকেট দল।

তার মধ্যে একটি ছিলো পূর্ব আফ্রিকার বিপক্ষে।

এরপর আস্তে আস্তে পুরো পৃথীবির বুকে পরিচিত হতে থাকে টিম কেনিয়া।

১৯৯৪ সালে নাইবিরিয়োতে আইসিসি ট্রফিতে কেনিয়া স্বাগতিক হিসেবে মর্যাদা পায়।

দারুন ভাবে খেলে তারা ঐ টুর্নামেন্টে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাথে খেলে রানার্স-আপ হয়।

এরপর ১৯৯৬ সালে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে কেনিয়া।

১৯৯৬ এর বিশ্বকাপে ভারত , অষ্ট্রেলিয়া, ওয়েষ্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলংকার সাখে একি গ্রুপে পরে তারা।

এই টুর্নামেন্টেও অনেক ভালো খেলে তারা।

মজার বিষয় হচ্ছে নতুন দল হিসেবে তারা বিশ্বকাপ ইতিহাসে তাক লাগিয়ে দেয়।

ওয়েষ্ট ইন্ডিজের  সাথে খেলে মাত্র ৯৩ রানে গুটিয়ে দেয় ওয়েষ্ট ইন্ডিজকে ।

ক্যারোবীয়দের সাথে ৭৩ রানে জয় লাভ করেন।

সেই ধারাবাহিকতায় চলতে থাকে তাদের খেলা।

বড় বড় দল গুলোও তাদের সাথে খেলতে আসলে নাকে চুবানি খেতো।

সে সময়ের টেষ্ট খেলুরে দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশও পেরে উঠতো না সহজে।

 

২০০৩ সালের বিশ্বকাপ খেলায় তারা আরো একটি অঘটন ঘটিয়ে তাক লাগিয়ে দেয় পুরো বিশ্বকে। সেবার তারা বাঘা বাঘা দল গুলোকে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠে।

কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য তাদের এই খেলার মর্যাদা মাত্র ২০১৩ সাল প্রর্যন্ত থাকে।

এর পর শুরু হয় তাদের অধ:পতনের গল্প। আস্তে আস্তে তাদের খেলার মান নিচে যেতে থাকে। ফর্মহীনতা এবং ভালো খেলোয়ার না থাকার কারনে সব গুলো ম্যাচেই তারা বাজে ভাবে হারতে থাকে।

২০১৪ সালে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে কেনিয়া একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার মর্যাদা হারায়। এরপর থেকে ধীরগতিতে হারাতে থাকে কেনিয়া দলটি।

নাফিউল ইসলাম ওপু।

নিউজ ঢাকা টুয়েন্টিফোর ডটকম।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ধুঁকতে ধুঁকতে কোয়ার্টারে উরুগুয়ে

  কোপা আমেরিকার সবচেয়ে বেশি ১৫ বার শিরোপা জিতেছে উরুগুয়ে। ২০১১ সালে সর্বশেষ শিরোপা জয়ের …

23 comments

  1. Its like you read my mind! You appear to know so much about this, like you wrote the book in it or something. I think that you can do with some pics to drive the message home a bit, but other than that, this is wonderful blog. A great read. I will certainly be back.|

  2. I am sure this post has touched all the internet viewers, its really really pleasant paragraph on building up new webpage.|

  3. recommended post, i like it

  4. immaculate post, i like it

  5. very appropriate article, i love it

  6. terrific article, i love it

  7. Asking questions are in fact fastidious thing if you are not understanding something fully, however this article gives fastidious understanding even.|

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!