অতিথী পাখি

কেরানীগঞ্জে অতিথী পাখি বিক্রয়কালে আটকঃ ১

কেরানীগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর বাজারে অতিথী পাখি বিক্রয়ের সময় মো: আলামিন (৩০) নামে এক  পাখি বিক্রেতাকে আটক করেছে র‌্যাপিড একশন ব্যাটলিয়ন (র‌্যাব)। এ সময় তার কাছে প্রায় ১৫টি  পাখি পাওয়া যায়।

র‌্যাব ১০ সিপিসি-২ এর কেরানীগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর সৈয়দ ইমরান হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি কেরানীগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর বাজারে অতিথি পাখি ক্রয় বিক্রয় করা হচ্ছে।

এর পরে বিকাল ৫টা নাগাদ র‌্যাবের একটি টিম আব্দুল্লাহপুর বাজারে অভিযান চালায়। অভিযানে মো: আলামিন (৩০) নামে একজন কে আটক করা হয়। এ সময় আলামিনের কাছ থেকে ৭টি মেন্ডিরিয়াম পাখি, ৫টি বালিহাস ও ৩টি কালিন পাখি উদ্ধার করা হয়।
উদ্ধারকৃত পাখি গুলো বিচরনের জন্য গাজীপুর বনবিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এবং মো: আলামিনের বিরুদ্ধে বন্যপ্রানী আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

 

র‌্যাব ১০ সিপিসি কমান্ডার সৈয়দ ইমরান হোসেন আরো বলেন, অতিথী পাখি আমাদের দেশের সম্পদ। এরা আমাদের প্রাকৃতিক পরিবেশের একটা অংশ। কিছু মানুষ সামান্য কিছু টাকার লোভে এদেরকে স্বীকার করে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি করছে। অতিথী পাখি মারা বন্যপ্রানী সংরক্ষন ও নিরাপত্তা আইনে দ্বন্ডনীয় অপরাধ। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার্থে অতিথী পাখি শিকার বন্ধে সবাইকে সচেতন হতে হবে।

নিউজ ঢাকা ২৪

 

আরো পড়ুন: সন্তান না হওয়ায় ভারতে এক নারীকে…

 

ভারতে একগৃহবধুকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করা হচ্ছিল। ঘটনাটি ভারতের বিহারে । পুলিশ বলছে, তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন হিন্দুদের মরদেহ যেভাবে সৎকার করা হয়, সেভাবেই কাঠ দিয়ে চিতা সাজায়িছিলো পুড়ানোর জন্য।

পুলিশ যখন আশেপাশের লোকজনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তখন শুধু কাঠে আগুন দেওয়াটাই বাকি ছিল। লক্ষ্মী দেবী নামের এক নারী চিতার ওপরেই অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন।

স্বামী, শ্বশুর আর শাশুড়ি মিলে প্রতিনিয়ত মারধর করত ওই নারীকে। সোমবারও তাকে মারধর করতে করতে নদীর পারে নিয়ে আশে পুড়িয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যে। নদীর ঘাটে বালি তোলার কাজ করেন যেসব শ্রমিকরা তারাই পুলিশকে খবর দেয়।  ঘাটে নিয়ে আসার পরে ওই নারীকে পুড়ানোর জন্য খুব দ্রুত চিতা সাজানো হতে থাকে।

এক সময় ওই নারীকে চিতার কাঠের ওপরে শুইয়ে দেওয়া হয়। তবে কোন অঘটন ঘটার আগেই  পুলিশ সেখানে গিয়ে অচেতন অবস্থায় ওই নারীকে উদ্ধার করে।

পুলিশ দেখেই ওই নারীর শ্বশুরবাড়ির লোকজন ঘটনাস্থথ থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ কর্মকর্তা কুমার বলেন, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর ওই নারীর আত্মীয় স্বজনরা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। অভিযুক্তরা সবাই পলাতক। তবে লক্ষ্মী দেবীর অবস্থা এখন স্বাভাবিক রয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় বৃদ্ধার মৃত্যু

ঢাকার কেরানীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় সমর্থ বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধা মর্মান্তিক মৃত্যু বরন করেন। ২৫ …

2 comments

  1. I blog frequently and I genuinely appreciate
    your content. This great article has really peaked my interest.
    I will bookmark your site and keep checking for new details about once a week.
    I opted in for your RSS feed as well.

  2. Everyone loves it whenever people get together and share ideas.
    Great blog, continue the good work!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!