কয়রা

কয়রায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া মাঠের আলোচনায় ৬ জন

ইখতিয়ার উদ্দিন তপু(খুলনাজেলা প্রতিনিধি):- চলতি বছরের মার্চে উপজেলা নির্বাচন হতে পারে। এমন অভাসে কয়রায় শুরু হয়েছে আলোচনা। কোন দল থেকে কে প্রার্থী হবেন সেই হিসেব কষছেন অনেকেই। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সম্ভাব্য প্রার্থীরাও নড়েচড়ে বসেছেন।

বিভিন্ন প্রার্থীদের পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসুবকেও চলছে জোর প্রচার-প্রচারণা। বিএনপি-জামাত জোট কেন্দ্রীয়ভাবে কোনো ধরনের আলোচনা বা সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করায় প্রচারণায় বিএনপি-জামাতের প্রার্থীরা নেই। বিএনপি-জামাতে’র তৃণমূল নেতাকর্মীদেরও উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কোন ধরনের আগ্রহ লক্ষ করা যায়নি। তবে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কয়রার হাট-বাজার, চায়ের দোকান,পাড়া-মহল্লায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নামের পাশাপাশি বিএনপি-জামাত জোটের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়েও আলোচনা করছেন সাধারণ ভোটাররা।

মাঠের আলোচনায় এ পর্যন্ত আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে যাদের নাম আলোচনায় রয়েছে তারা হলেন, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম মোহসিন রেজা, যুবলীগের সভাপতি ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ পুস্তক বাঁধাই ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো আব্দুল্লাহ আল-মাহমুদ। অপরদিকে, উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি-জামাত জোট থেকে মনোনয়ন দৌড়ে কয়রা উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. মোমরেজুল ইসলাম, খুলনা দক্ষিণ জেলা জামায়াতের সাবেক আমীর ও কয়রা উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান মাওলানা তমিজ উদ্দিন এবং খুলনা দক্ষিণ জেলা জামায়াতের সেক্রেটারী এ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমানের নাম আলোচনা করছেন সাধারণ ভোটাররা।

তবে এ তালিকা আরো দীর্ঘ হতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে। ইতমধ্যে দলীয় মনোনয়ন বাগিয়ে নিতে সম্ভাব্য প্রার্থীরাও দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে জানানও দিচ্ছেন। এমনকি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যম কর্মী ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে অনেকেই যোগাযোগ রক্ষা করে চলছেন। উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী কয়রা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম মোহসিন রেজার পক্ষে দলীয় নেতাকর্মীরা বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগও করে চলেছেন।

এদিকে, কয়রা উপজেলা যুব লীগের সভাপতি ও সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম কয়রা উপজেলা প্রেসকাবে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি প্রার্থী হবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এছাড়াও উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতায় আর এক নতুন মুখ বাংলাদেশ পুস্তক বাঁধাই ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা মো আব্দুল্লাহ আল-মাহমুদও আলোচনায় রয়েছেন। তিনি স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের অনেকের সাথেই প্রার্থী হবার আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেছেন।

তবে স্থানীয় সূত্রগুলো বোলছে, জাতীয় নির্বাচনে ভরাডুবি হওয়ার পর অনেকটা বেকায়দায় পড়েছে বিএনপি-জামাত। সে হিসেবে নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জনের পর অনেকটা ভালো অবস্থানে আছে কয়রার আওয়ামী লীগ। আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও এর প্রভাব পড়বে বলে অনেকেই ধারনা করছেন। তবে বিগত উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত জামাত নেতা আখম তমিজ উদ্দিন নির্বাচিত হয়েছিলেন। যে কারণে এবারো উপজেলা নির্বাচনে তারা আত্মবিশ্বাস নিয়েই প্রার্থী হতে চাইবেন বলে ধারনা করা হচ্ছে।

স্থানীয় জনসাধারনের সাথে কথা বলে জানাযায়, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ সংখ্যাঘরিষ্ঠতা অর্জন করেছিল। এর মাসখানেক পরেই অনুষ্ঠিত চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কয়রা উপজেলায় বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী জয়লাভ করে।

এবারো একাদশ জাতীয় নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে বিএনপি-জামায়াতের। আগামী উপজেলা নির্বাচনে এর প্রভাব না পড়লে একটি প্রতিদ্বন্দিতামূলক নির্বাচন হবে এ অঞ্চলে। সে ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগকে প্রার্থী বাছাইয়ে অনেক বেশি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে, এমন মন্তব্য খোদ আওয়ামী লীগ নেতাদের। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ বলেন, নির্বাচনের জন্য তাদের প্রস্তুতি রয়েছে। উপজেলায় যারা প্রার্থী হতে চান তারা এরইমধ্যে যোগাযোগ শুরু করেছেন। তাদের মধ্যে তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে তিনজন করে প্রার্থীর নাম সুপারিশ করে দলীয় হাইকমান্ডের কাছে পাঠানো হবে বলেও জানান এই আওয়ামী লীগ নেতা।

নিউজ ঢাকা ২৪।

আরো পড়ুন: বুড়িগঙ্গায় দুই তরুনের।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ত্রিশালে প্রডিউসার অর্গানাইজেশন কমিটিতে অনিয়মের অভিযোগ

  এস.এম জামাল উদ্দিন শামীম,ত্রিশাল প্রতিনিধিঃময়মনসিংহের ত্রিশালে মৎস্য সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আওতায় প্রডিউসার অর্গানাইজেশন (পিও) এর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!