কামরুল ইসলাম

নিশ্চিত পরাজয় ভেবে নির্বাচন বানচাল করার জন্য ঐক্যফ্রন্ট সিইসি বদলাতে চান- এ্যাড. কামরুল ইসলাম

একাদশ নির্বাচনের আর মাত্র এক মাস বাকী । এই নির্বাচনের নিশ্চিত পরাজয় ভেবে ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ডাঃ কামাল হোসেন এখন প্রধান নির্বাচন কমিশন (সিইসি) পরিবর্তন চান। এটা পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কিছু না। একথা বলেছেন কামরুল ইসলাম

তারা নির্বাচন বানচাল করার জন্য এ রকম প্রস্তাব রাখছেন। আগামী নির্বাচনে লড়াই হবে মুক্তযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ও মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তির মধ্যে। নির্বাচন সুষ্ঠ ভাবে হোক একটি মহল তা চায় না। তাই নির্বাচন বানচালের জন্য কিছু ষড়যন্ত্রকারী ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে, সাধারন জনগন সেই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার জন্য সার্বজনীন ভাবে ঐক্যবদ্ধ আছে। নির্বাচনে ব্যালোটের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তিকে সমীচিন জবাব দেয়া হবে। যার যার অবস্থান থেকে ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিহত করার চেষ্টা করবে। এ সব ষড়যন্ত্রকারীরা আমাদের সন্তানদের মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস না শেখানোর জন্য নির্বাচন বানচাল করতে চায়। গতকাল শুক্রবার সকালে কালিন্দী ইউনিয়নের মাদারীপুর এলাকায় ঢাকা-২ আসনের নির্বাচন পরিচালনার সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোঃ কামরুল ইসলাম এ কথা বলেন।

 

মন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার হাত ধরেই আজকে দেশে এগিয়ে যাচ্ছে। আগামী ২০২৪ সালে আমরা উন্নত দেশ হিসাবে স্বীকৃতি পাবো। তাই আগামী নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনা সরকারকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে। একটু ভুল হলে উন্নয়নের সব পথ বন্ধ হয়ে ফের সন্ত্রাস, মাদক, খুন, রাহাজানি, জালাও পোড়াও, অগ্নিকান্ডের ভওে যাবে। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ। শিক্ষা খাত, স্বাস্থ্যখাত সমৃদ্ধ, বয়ষ্ক ভাতা, বিধাব ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, মুক্তিযোদ্ধাভাতা বৃদ্ধিসহ দেশে ১৪৬টি প্রকল্প চালু রয়েছে যা পৃথিবীর মানচিত্রে আর কোন দেশে নাই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিশুদেও শিক্ষার জন্য প্রতিমাসে ভাতা চালু করেছে যাতে করে কোন মা শিশুদের স্কুলে না পাঠিয়ৈ কাজে না পাঠায়। বছরের প্রথম দিনেই ছাত্র ছাত্রীরা নতুন বই হাতে পায়। যার নজির উপমহাদেশে আর কোন দেশে নাই। আর আমাদের প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব নন্দিত নেত্রী। বিএনপি জামাত সরকার দেশকে যে ধ্বংশের মুখে ফেলে দিয়েছিল আমাদের প্রধানমন্ত্রী সেখান থেকে দেশকে তুলে এনেছেন। দেশ আজ এগিয়ে চলেছে। একটি কুচক্রী মহল দেশকে পিছিয়ে ফেলার জন্য স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের সাথে মিলে ষড়যন্ত্র করে বেড়াচ্ছে। তাদের এ ষড়যন্ত্র কিছুতেই সফল হতে দেয়া যাবে না। আগামী নির্বাচনে আপনারা আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে সাধারন জনগন দেশের উন্নয়ন অব্যহত রাখবে।

ঢাকা-২ আসনের নির্বাচন পরিচালনা সমন্বয় সভায় আওয়ামীলীগ নেতা আবুল হাসান মাস্তানের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন, ঢাকা জেলা যুবলীগের সভাপতি শফিউল আজম খান বারকু, কেন্দ্যীয় যাবলীগ নেতা ইউসুফ আলী চৌধুরী সেলিম, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলতাফ হোসেন বিপ্লব, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নাজমুল জাহান রিপন, ,এ্যাড. এনামুল হক,ওয়াহিদুজ্জামান মিষ্টার, নজরুল ইসলাম, অনিক হোসেন পিন্টু, জুবায়ের হোসেন মাসুম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্যমন্ত্রীর পুত্র ডাঃ তানজিল ইসলাম ওয়াদিত।

এ.এইচ.এম সাগর।
নিউজ ঢাকা ২৪

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

গোপালপুর পৌর নির্বাচন: নৌকার গণসংযোগে বনপাড়া পৌর মেয়র

সজিবুল ইসলাম হৃদয়ঃ নাটোরের গোপালপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মেয়র পদপ্রার্থী রোকসানা …

13 comments

  1. You actually make it seem really easy along with your presentation but I find this topic to be actually one thing that I think I might by no means understand. It kind of feels too complex and very vast for me. I’m looking ahead for your subsequent put up, I will try to get the dangle of it!|

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!