শীতের অপেক্ষায় কেরানীগঞ্জের গার্মেন্টস ব্যবসায়ীরা

শীতের অপেক্ষায় কেরানীগঞ্জের গার্মেন্টস ব্যবসায়ীরা

অগ্রাহয়ন শুরুর দিকে, হেমন্ত ও মাঝামাঝিতে, এই সময়ে শীতের আমেজ হালকা পড়তে শুরু করেছে। আর শীতের প্রভাব পরেছে কেরানীগঞ্জের গার্মেন্টস গুলোতে। দোকানীরে অপেক্ষা করছে শীতের শুরু  হবে কখন।

বাচ্চাদের বাহারী রঙের সুয়েটার , ছেলেদের জ্যাকেট থেকে শুরু করে ব্লেজার, মেয়েদের নানা ধরনের শীতের পোষাকের পসরা সাজিয়ে বসেছেন দোকানীরা।

আবহাওয়া অফিসের সুত্র মতে গতবারের চেয়ে এবার শীত একটু বেশি পড়বে, তাই এবার শীতের পোষাকের চাহিদা বাড়বে বলে ধারনা করছেন ব্যবসায়ীরা । এছাড়া যেহুতু আগামী নির্বাচন পরেছে সম্পূর্ন শীতের মধ্য তাই নির্বাচনের উত্তাপ শীতের পোষাক বাজারেও থাকবে বলে ব্যবসায়ীরা মনে করছেন।

কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস ব্যবসায়ী দোকান মালিক সমিতির আওতায় আগানগর ও শুভাড্যায় প্রায় দশ হাজারের বেশি গার্মেন্টস এবং ছয় হাজার শোরুম রয়েছে। আর এ সকল দোকান থেকে পাইকারী পোশাক কিনতে দেশের নানা প্রান্ত থেকে ক্রেতারা আসেন। শুধু তাই নয়, এই খানের পোষাকের চাহিদা রয়েছে দেশের বাহিরেও। ছোট বড়ো মাঝারী, সব বয়সের সব ধরনের সবার জন্য পোষাক পাওয়া যায়। দামেও কম কেরানীগঞ্জের শীতের পোষাক। তাছাড়া পোষাকের গুনগত মান অনেক ভালো। তাই কেরানীগঞ্জের পোষাকের কদর রয়েছে দেশ জুড়ে।
সরজমীনে কেরানীগঞ্জের আলম মার্কেট এলাকা ঘুড়ে দেখা যায়, প্রায় প্রতিটা দোকানেই হরেক রকমের শীতের পোষাকের কালেকসন। ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকারী ক্রেতারা আসতে শুরু করেছে কেনা কেটা করার জন্য।

নবরাজ প্যান্ট হাউজের কর্নধার হাজী মো: জাহাঙ্গীর সাহেব জানান, শীত এখোনো পরেনি, তাই বেচা কেনা তেমন ভাবে শুরু হয় নি। গেল বছর অর্থনৈতিক মন্দার কারনে তেমন ব্যবসা হয় নি। আর যেহুতু এটা সিজনাল ব্যবসা তাই শীতের উপর নির্ভর করে কেনা বেচা কেমন হবে। শীত উপলক্ষে প্রতিটা দোকানেই প্রায় কোটি টাকার উপরে কেনা বেচার টার্গেট থাকে। গেল কয়েক সীজনে শীত মোটামুটি কম পরায় আমাদের বেচা কেনা ও খুব কম হচ্ছে যার কারনে লাভ করা তো দূরের কথা , চালান তুলতেই কষ্ট হয়।

শীতের পোষাক বাজার নিয়ে কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস ব্যবসায়ী ও দোকান মালিক সমিতির কোষাধ্যক্ষ শেখ কাওসার জানায়: আমাদের দেশ ছয় ঋতুর দেশ। কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে দুই ঋতুর দেশ বললে চলে। গেল বছর শীত কম পরার দরুন অনেক ব্যবসায়ী লোকসানের সম্মুখীন হয়েছে। তবে এবার সবাই বলছে শীত একটু বেশি পড়বে ব্যবসা ও ভালো হবে। এশিয়ার বৃহত্তম পোষাক শিল্পের মার্কেট এই কালিগঞ্জ। আমাদের এখানের পোষাকের মান অনেক ভালো। বিশ্বের যে কোন দেশের পোষাকের সাথে চেলেঞ্জ করে এখানে পন্য তেরি করা হয়। সমগ্র বাংলাদেশ থেকে ক্রেতা আসে আমাদের এই খানে। আর তাদের নিরাপত্তা দিতে কেরানীগঞ্জ গা: ব্যবসায়ী দোকান মালিক সমিতি সার্বক্ষনিক ভাবে তৎপর রয়েছে।

কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল আজিজ শেখ বলেন, এখান থেকে খুব সহজেই দেশের বিভিন্ন স্থানে পন্য পরিবহন করা যায়, এখানে কোন চাদাবাজি নেই , তাই সারা দেশ থেকে এখানে ক্রেতারা এসে পন্য পরিবহনে সাচ্ছন্য বোধ করেন। দেশের শীতের পোষাকের প্রায় ৭০ শতাংশ চাহিদা মেটায় কালীগঞ্জের শীতের পোষাক। সব মিলিয়ে এবারে শীতে ব্যবসায়ী ও পোষাক শ্রমিকদের মুখে হাসি ফুটবে বলে আমি মনে করি।

 

আরো পড়ুন: ভোটার আইডি কার্ডে ভুল থাকলে কি করবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

আমান উল্লাহ আমানের সুস্থতা কামনায় মসজিদে মসজিদে দোয়া

মোঃ মাসুদ করোনা আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মণ্ডলীর অন্যতম সদস্য, ডাকসুর সাবেক ভিপি ও সাবেক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!