এগিয়ে চলেছে কেরানীগঞ্জ

ম ই মামুন সম্পাদিত এগিয়ে চলেছে কেরানীগঞ্জ নামক বইয়ের মোড়ক উন্মোচিত

কেরানীগঞ্জের স্বপ্ন পূরণে নসরুল হামিদ বিপু এর ১০ টি বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে রচিত বই এগিয়ে চলেছে কেরানীগঞ্জ এর মোড়ক উন্মোচিত হলো আজ।  কেরানীগঞ্জ গ্রাজুয়েট সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও পাক্ষিক বুড়িগঙ্গা পত্রিকার সম্পাদক  ম ই মামুন বইটি সম্পাদনা করেছেন।

শনিবার ৩ নভেম্বর দুপুর ৩.৩০ এ বিদ্যুৎ ও জ্বালানী প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সহ কেরানীগঞ্জের বিশিষ্ট বেক্তিবর্গ  উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে ভিডিও চিত্রগ্রাফীর মাধ্যমে বিগত বছর গুলোতে কেরানীগঞ্জের নসরুল হামিদ বিপুর পরিকল্পনায় সাধিত কিছু উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরা হয়।

সংক্ষিপ্ত এক বক্তব্যে নসরুল হামিদ বিপু বলেন, কেরানীগঞ্জের উন্নয়ন হয়েছে, হচ্ছে এবং হবে। শুধু প্রয়োজন সাধারন জনগনের সহযোগিতা। কেরানীগঞ্জের উন্নয়নের যে ধারা বিরজমান, আগামী নির্বাচনে নির্বাচিত হলে ইনসা আল্লাহ উন্নয়ন অব্যহত থাকবে। কেরানীগঞ্জ বিগত ১০ বছরে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। আগামীতে আরো পরিবর্তন হবে। কেরানীগঞ্জ একটা মেগাসিটিতে রুপ নিবে। কেরানীগঞ্জের ছেলে মেয়েরা আজকে কোন ক্ষেত্রেই পিছিয়ে নেই। আজকে তারা গ্রাজুয়েট হয়ে বিভিন্ন উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। বিভিন্ন সেক্টরে কেরানীগঞ্জের নাম উজ্বল করছে।

 

এগিয়ে যাচ্ছে কেরানীগঞ্জ বইটিতে যে ১০ টি বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে কথা বলা হয়েছে তা হলো

প্রথমেই শিক্ষা ক্ষেত্রে বিগত বছর গুলোতে যে সকল উন্নয়ন করা হয়েছে তার প্রতি আলোকপাত করা হয়েছে। এছাড়া আগামীতে কি কি পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে তার বর্ননা ও দেয়া হয়েছে।

দ্বিতীয়তে কেরানীগঞ্জকে মেগাসিটিতে পরিবর্তন করতে বিপুর যে মাষ্টার প্লান রয়েছে তা উল্লেখ করা হয়েছে বইটিতে।

নাম্বার তিন এ কেরানীগঞ্জের নদী ও খাল উদ্ধারের জন্য নসরুল হামিদ বিপুর যে পরিকল্পনা রয়েছে তা বর্ননা করা হয়েছে । খাল উদ্ধারের জন্য যে সকল পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে তা ও বর্ননা করা আছে বইটিতে।

এছাড়া শতভাগ বিদ্যুতায়ন, কেরানীগঞ্জের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, ক্রীড়া ক্ষেত্রে কেরানীগঞ্জের উন্নয়ন, স্বাস্থ্যখাতে উন্নয়ন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পরিবেশ রক্ষা, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়ন সহ ডিজিটাল কেরানীগঞ্জ তৈরীতে নসরুল হামিদ বিপুর নেয়া পদক্ষেপ এবং আগামী পরিকল্পনা গুলো বিস্তর ভাবে বর্ননা করা আছে বইটিতে।

 

বইটির সংকলন ও সম্পাদনায় ছিলেন ম.ই মামুন এছাড়া বইটি তৈরি করতে বিশেষ সহযোগীতা করেছেন, সাইফুল ইসলাম, জামিল আক্তার, নসরুল হামিদ ফাউন্ডেশন সহ ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ৪

নিউজ ঢাকা ২৪।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

আপনি বেঁচে থাকলে অনেক কম টাকায় গরিব সেবা পাবে

গত ২৫ মে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন গনস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী। শুরুর দিকে তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!