চাউল বিতরণ

রাজবাড়ীতে চাউল বিতরণ ও সচেতনতামূলক সভা

রাজবাড়ীতে রবিবার সকালে উপজেলা মৎস্য দপ্তর এর আয়োজনে মা ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ সময়ে বিরত থাকা জেলেদেও জন্য বিশেষ ভিজি এফ খাদ্য শস্য চাউল বিতরণ ও সচেতনামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ শওকত আলী , প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ¦ কাজী কেরামত আলী এমপি , সে সময় আরো উপস্থিত সদর উপজেলা কর্মকর্তা মোঃ সাঈদুজামান খান , উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড ঃ এমএ খালেক , জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাঃ মজিনুর রহমান , মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি শচীন বাবু , মিজানপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান , বরাট ইউনিয়ন চেয়ার ম্যান শেখ মনিরুজামান সালাম প্রমুখ ।

এ সময় সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়ন ও বরাট ইউনিয়নের জেলেদের মাঝে ২০ কেজি করে চাউল বিতরণ করা হয়েছে । মিজানপুর ইউনিয়ন মোট ৪৭১ জন জেলে বরাট ইউনিয়ন মোট ২৫০ জন জেলের মধ্যে এ চাউল বিতরণ করা হয় । এসময় প্রধান অতিথি তিনি তার বর্ক্তব্য বলেন ৭ আক্টোবর থেকে ২৮ আক্টোবর পর্যন্ত জেলেদের কে মা ইলিশ আহরণ না করার জন্য জেলেদেরেকে অনুরোধ জানান ।

রাজবাড়ি প্রতিনিধি।
নিউজ ঢাকা ২৪।

 

আরো পড়ুন: পদ্মায় জেলেদের জালে ১৭ কেজি মাছ ??

 

 ছেলেটি পাওয়া গেছে

 

কেরানীগঞ্জের কদমতলী বাসষ্টান্ড এলাকায় এক কোনে দাড়িয়ে ছয়-সাত বছরের একটি বালককে কান্না করতে দেখে পথচারীরা। পরে শিশুটিকে নাম ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে সে জানায় তার নাম মোঃ হাসান। পিতার নাম বাবুল চোকিদার। আর কিছু বলতে পারে না।

ছেলেটিকে নিয়ে পথচারীরা বিপাকে পড়ে যায়। পথচারীরা কোন উপায়ান্ত না পেয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় নিয়ে দিয়ে আসে।দুপুরে মডেল থানায় গিয়ে ছেলেটির সাথে কথা হলে তিনি জানান, তার নাম মোঃ হাসান, পিতার নাম বাবুল চোকিদার,মা পারভীন বেগম। বাড়ির কথা জিজ্ঞাসা করলে সে জানায় শ্রীপুর।

ঢাকায় কিভাবে এসেছে জানতে চাইলে হাসান জানান, আমি গাড়িতে চড়ি শ্রীপুর নদীর ধারে যাওয়ার জন্য গাড়িটি আমাকে এখানে নিয়ে এসেছে। আমি গাড়ি থেকে কান্না করলে লোকজন আমাকে এখানে এনে রেখে গেছে। মা-বাবা কোথায় জিজ্ঞাসা করলে জানায়, আমার বাবা নাই, মা গার্মেন্টে যায় (গার্মেন্ট কর্মী)।
এ ব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি সাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, শুক্রবার রাতে কয়েকজন পথচারী ছেলেটিকে কদমতলী বেবী ষ্টান্ডের সামনের রাস্তায় ছেলেটিকে কান্না করতে দেখে তাকে জিজ্ঞাসা করে জানতে পারে ছেলেটি হারিয়ে গেছে। ছেলেটি নিজ নাম, বাবা-মায়ের নাম বলতে পারলেও ঠিকানা একেক সময় একক রকম বলছে। সে যে ঠিকানার কথা বলতেছে আমরা সে এলাকার থানার মাধ্যমে খোজ খবর নিয়ে তা সঠিক পাচ্ছি না। ছেলেটি আমাদের হেফাজতে রয়েছে। যদি কেউ ছেলেটির চিনতে পারেন তাহলে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কুবি প্রেস ক্লাবের দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠান ও শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি

নাবিলা সাজেদ এষা,কুবি প্রতিনিধি:  কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) প্রেস ক্লাবের ২০২১-২২ বর্ষের কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্ব হস্তান্তর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!