কাতল

পদ্মায় জেলের জালে ১৭ কেজি ওজনের কাতল !!

রাজবাড়ী জেলা গোয়ালন্দ উপজেলার মাঝ পদ্মায় জেলেদের জালে ১৭ কেজি ওজনের একটি কাতল ধরা পরেছে আজ।

শুক্রবার সকালে গোয়ালন্দ উপজেলার পৌরসভা এলাকার জেলে সামাদ ফকির পদ্মা নদীর মাঝখানে জাল ফেলে। এ সময় ১৭ কেজি ওজনের কাতল মাছটি ধরা পরে।

এ সময় মাছটি নদীর পারে নিয়ে আসলে উৎসুক জনতা এক নজর দেখতে ভীর জমায়। পরে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট এলাকার মাছ ব্যাবসায়ী চান্দু মোল্লা ১৪ শত টাকা কেজি দরে ২৩ হাজার ৮ শত টাকায় কিনে নেন।

মাছ ব্যবসায়ী চান্দু মোল্লা বলেন, এত বড় কাতল মাছ পদ্মায় খুব কমই ধরা পরে। আমি মাছটি ১৪ শত টাকা কেজি দরে কিনেছিলাম। পরে ঢাকার উত্তরা এলাকার এক শিল্পপতির কাছে ১৫ শত টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছি।

শেখ রনজু আহাম্মেদ।

নিউজ ঢাকা ২৪।

 

 

 

আরো পড়ুন:  সাজেকে আগুন

 

রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ির প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা সাজেকে এর রুইলুই পর্যটন কেন্দ্রে আগুন লেগে চারটি কটেজ পুড়ে গেছে। আগুন পার্শ্ববর্তী সাজেক বিলাসে ও গরবা রেস্ট হাউজ এবং  ছড়িয়ে পড়ে। 

রবিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পাওয়ার সাথে সাথে খাগড়াছড়ির দিঘীনালা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা  ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দিবাগত রাত ২টার দিকে হঠাৎ রুইলুই পর্যটন কেন্দ্রের কাচালং রেস্ট হাউজ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন পার্শ্ববর্তী সাজেক বিলাসে ও গরবা রেস্ট হাউজ এবং  ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে  স্থানীয়রা ও নিরাপত্তা বাহিনী ঘটনাস্থল থেকে পর্যটকদের সরিয়ে নিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালিয়েছে।

কাচা লং রিসোর্টের রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে জানিয়েছে সেনাবাহিনী। দ্রুত সবাই বের হয়ে যাওয়ায়, হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। প্রায় দেড় ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী ও এলাকার লোকজন।

কাচা লং রিসোর্টের পাশাপাশি আগুনে পুড়ে গেছে সাজেক বিলাস, গর্বাসহ ৪টি রিসোর্ট।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

লালপুরে সাংবাদিকদের কবিতা পাঠের আসর অনুষ্ঠিত

  লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধিঃ নাটোরের লালপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের মাসিক সভা, সিনিয়র সাংবাদিক আব্দুর  রশিদ মাষ্টারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!