এশিয়া কাপ

এশিয়া কাপ এ ব্যর্থ হয়েছেন যারা

ক্রিকেট বিশ্ব এবারের এশিয়া কাপ এ তুমুল লড়াই দেখেছে। থার্ড আম্পায়ার ফাইনালে লিটন দাসের সেই বিতর্কিত আউটটা না দিলে হয়তো ফলাফলটা অন্যরকম হতো। পুরো এশিয়া কাপ জুড়ে উজ্বল ছিলো অনেকেই। মোস্তাফিজুর রহমান, মুশফিফ রহিম, রোহিত শর্মা, রাশিদ খানরা আছেন এই তালিকাই। কিন্তু ভক্তদের হতাশ করার তালিকাটাও ছোট না। চলুন দেখে নেই এশিয়া কাপ এ ব্যর্থ হয়েছেন  যারা:

কুশল মেন্ডিস

এবারের এশিয়া কাপে বাজে খেলে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয় শ্রীলংকা।  লংকান ওপেনার কুশল ২ টি ম্যাচেই মহা ব্যর্থ ছিলেন। বাংলাদেশ আর আফগানিস্থানের সাথে ২ ম্যাচেই ডাক মারেন তিনি।

 

ফখর জামান

পাকিস্তানের ওপেনার ফখর জামান তুমুল ফর্ম নিয়ে খেলতে এসেছিলেন এশিয়া কাপ। তবে পুরোপুরি ফ্লপ তিনি। ৫ ম্যাচে করেছেন ৫৬ রান এর মধ্যে দুটিতে শূন্যরানে আউট।

 

আসগর আফগান

আফগানিস্থান্ এশিয়া কাপে দুর্দান্ত খেলে এবার। তবে দলটির অধিনায়ক  নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেন নি। ৫ ম্যাচে করেছেন ১১৫ রান।

 

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ

ব্যর্থতার দায়ে অধিনায়কত্ব হারিয়েছেন শ্রীলংকান অধিনায়ক ম্যাথুজ। বাদ পড়েছেন দল থেকেও। দুই ম্যাচে তার সংগ্রহ ৩৮

 

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

মাহমুদুল্লাহ ও মোটামুটি ব্যার্থ।  ৬ ইনিংসে তার সংগ্রহ ১৫৬ রান। ১ ম্যাচে জ্বলে উঠলেও বাকি ৫ ম্যাচে ছিলেন অনুজ্বল।

 

মহেন্দ্র সিং ধোনি

প্রয়োজনের সময় ধোনি ব্যাট হাতে দাঁড়িয়ে পড়েন সব সমই। কিন্ত ধোনিকে এশিয়া কাপের এবারের আসরে সেই পাওয়া যায়নি। ৬ ম্যাচের ৪ ইনিংসে ব্যাট করেছেন। রান করেছেন মাত্র ৭৭।

সরফরাজ আহমেদ

৫ ম্যাচে সংগ্রহ মাত্র ৬৮ !! পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ চুড়ান্ত ব্যর্থ বলা চলে। দল তো ফাইনালে উঠতেই পারে নি ভারতের বিপক্ষে ও ২ ম্যাচে হেরেছে বাজে ভাবে।

হাসান আলি 

৫ ম্যাচে ৫ উইকেট নিয়েছেন হাসান আলী। এশিয়া কাপে পাকিস্তান বোলিংকে নেতৃত্ব দিতে পারেন নি তিনি। যদিও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেরা বোলার ছিলেন তিনি।

 

মোহাম্মদ আমির

নামের সাথে কোন সুবিচার করতে পারেন নি মোহাম্মদ আমির। তিন ম্যাচ খেলেও কোন উইকেট নিতে পারেন নি। বাজে পারফরম্যান্সের কারনে বাদ পরে যান তিনি ৩ ম্যাচ পরেই।

 

যুজবেন্দ্র চাহাল

বর্তমানে ভারতের স্পিনের আক্রমনের নেতা তাকে বলা হয়। কিন্তু এশিয়া কাপে তেমন কিছু করতে পারেন নি এ তরুন । দুই ম্যাচ কোন উইকেট পান নি। সব মিলিয়ে ৫ ম্যাচে সংগ্রহ ৬ উইকেট।

 

আমিলা আপোনসো

শ্রীলংকা এশিয়া কাপে তার উপর ভরসা ছিলো খুব বেশি। কিন্তু তিনি মাত্র বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ খেলেছেন ১টি। আর রান ও খরচা করেছেন অণেক।

নিউজ ঢাকা

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

নকলায় বিজয় দিবস ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

রাইসুল ইসলাম রিফাত (শেরপুর প্রতিনিধি): শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় বিজয় দিবস ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!