খাদ্যমন্ত্রী

বিএনপি আইএসআইয়ের এজেন্ট, কামাল মইনুল সাম্রাজ্যবাদীর এজেন্ট — খাদ্যমন্ত্রী

জাতীয় ঐক্য জোটের সমালোচনা করে খাদ্যমন্ত্রী এ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি বলেছেন, এটা নেতায় নেতায় ঐক্য। এদের জনভিত্তি নেই, ভোটও নেই। জনগনের জন্য এই ঐক্য নয়। ঐক্য প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মুলত এর উদ্যোক্তারা চাচ্ছে বিএনপি-জামাতকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় বসাতে।

বিএনপি হচ্ছে আইএসআইয়ের এজেন্ট আর ড. কামাল (গনফোরাম সভাপতি) ও (তত্তাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা) ব্যারিষ্টার মইনুল হচ্ছে সা¤্রাজ্যবাদী শক্তির এজেন্ট। তারা রাষ্ট্রকে লুটেপুটে খেতে চাচ্ছেন। আর এ কারনেই এই ঐক্যজোট গঠন করেছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জের আটিবাজার এলাকায় শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন, সফলতা ও ভবিষ্যত পরিকল্পনার প্রচার সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশ এখন সমৃদ্ধ। কারো কাছে এখন আর হাত পাততে হয় না। শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ সবক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে। দেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। আর এই উন্নয়ন ধরে রাখতে চাইলে আ’লীগের বিকল্প নেই।

খাদ্যমন্ত্রঅ আরো বলেন, শেখ হাসিনা সরকারের আমলে দেশের মানুষের কতটুকু ভাগ্যেও উন্নয়ন হয়েছে তার উপর নির্ভর করে দেশের জনগন ফের আওয়ামীলীগ সরকারকে ক্ষমতায় আনবে। দেশের মানুষ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনার আমলে সবচেয়ে বড় পাওনা হচ্ছে নিজ অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মান করা। তার হাত ধরেই সমুদ্র সীমানা বিজয় হয়েছে, তার হাত দিয়ে আজ দেশে দারিদ্রতার হার নি¤œ পর্যায়ে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী সাধারন জনগনের কথা চিন্তা করে বয়স্ক ভাতা, বিধাব ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা,গর্ভবর্তী মায়েদের জন্য মার্তৃ কালিন ভাতা, মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা,কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে  স্বাস্থ্য সেবা প্রদান, গরীব শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করেন। শেখ হাসিনার আমলেই শ্রমীকদেও মুজুরী বুদ্ধি,দেশের রপ্তানী আয় বৃদ্ধি, মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি,কর্মসংস্থাপন বৃদ্ধি,বৈদেশিক মুদ্রা রিজাব বৃদ্ধি,মাতৃত্বকালিন ছুটি বৃদ্ধি করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা হাত ধরেই আজ দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার ব্যবপক পরিবর্তন হয়েছে, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয়করন,বছরের প্রথম দিনে ৩৬ কোটি নতুন বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়। যা উপমহা দেশের অন্য কোন আর দেশে নাই। আজ বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ। বিশ্ববাসি আজ বাংলাদেশকে সাম্ভাবনার দেশ হিসাবে চিন্তা করে। আমাদের প্রীয় নেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বেও একজন নন্দীত নেত্রী। বিশ্বেও পাঁচজন সৎ নেত্রীর মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। বিশ্বেও ১০জন রাষ্ট্র নায়কের মধ্যে তার অবস্থান।
দেশ আজ সকল বিভাগে এগিয়ে গেছে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে আবারো দরকার শেখ হাসিনা সরকার। নির্বাচনকে কুলসিত করার জন্য ষড়যন্ত্র চলছে। বিএনপি নির্বাচনকে ভয় পায়। তাই তারা বিদেশীদেও কাছে ধন্যা দিচ্ছেন। তারা আগুন সন্ত্রাস করে শিশু, পুলিশসহ সাধারন মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে।

শাক্তা ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আজাদুর রহমান আজাদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন, ঢাকা জেলা যুবলীগ সভাপতি শফিউল আজম খান বারকু, জেলা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সিদ্দিক, যুবলীগ কেন্দ্রীয় সদস্য ইউসুফ আলী চৌধুরী সেলিম, এ্যাড. এনামুল হক,বীরমুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক তারানগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সাহাবুদ্দিন আহমেদ, কেন্দ্রীয় আ,লীগের সহসাধারন সম্পাদক আলতাফ হোসেন বিপ্লব, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জি. আব্দুল হান্নান,হযরতপুর ইউনিয়ন আ,লীগ সাধারন সম্পাদক মোঃ আলাউদ্দিন ,আটিবাজার বনিক সমিতির সভাপতি জাকির হোসেন, আখের হোসেন আখি প্রমুখ।

এ.এইচ.এম সাগর।
নিউজ ঢাকা

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

আবার দুর্ঘটনা

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চের ধাক্কায় নৌকা ডুবি ; নিখোজ ১

সপ্তাহ না ঘুরতেই বুড়িগঙ্গায় আবার দুর্ঘটনা। বুড়িগঙ্গা নদীর বাদামতলী ঘাট এলাকায় এম ভি মিরাজ ৬ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.