নারীর লাশ

বুড়িগঙ্গা নদী থেকে অজ্ঞাত পুরুষের বিবস্ত্র ভাসমান লাশ উদ্ধার

বুড়িগঙ্গা নদীর সদরঘাট ১৩ নং প্লটুনের সামনে অজ্ঞাতনামা পুরুষ (৫০) এর বিবস্ত্র ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। পরে লাশের ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ মহিদুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার সকালে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল এলাকার লোকজন ১৩ নং প্লটুনের সামনে এক পুরুষের লাশ ভাসতে দেখে থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে অজ্ঞাত পুরুষের ভাসমান লাশ পানি থেকে নৌকাযোগে টানে তুলে নিয়ে আসি। পরে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করি।

নিহতের গায়ে কোন প্রকার জামা-কাপড় নাই,বাম হাতে হাত ঘড়ি ও চারটি আংটি এবং ডান হাতে একটি আংটি পড়িহিতছিল। গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি। লাশটি চার-পাঁচ দিন আগের হওয়ায় শরীরে পঁচন ধরে চামরা উঠে যাচ্ছে। ধারনা হরা হচ্ছে সন্ত্রাসীরা অজ্ঞাতনামা পুরুষটিকে শ্বাসরোধে হত্যার পর বিব¯্র করে লাশ গুম করার জন্য নদীতে ফেলে দেন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট এবং লাশের পরিচয় পাওয়া গেলে মৃত্যুর আসল রহস্য জানা যাবে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অজ্ঞাত লাশের কোন পরিচয় পাওয়া যায়নি।

এ.এইচ.এম সাগর।

আরো পড়ুন: ফিফায় কোন ভোট পায় নি নেইমার।

 

অতি লোভে তাঁতী নষ্ট’ এই প্রবাদটা হারে হারে টের পাচ্ছে ব্রাজিলিয়ান স্টার নেইমার । ২০১৩ সালে বার্সোলনায় যোগ দানের পরে ছিলেন মেসির ছায়ায়। মেসির সংস্পর্শে থেকে বার্সোলনায় থাকা কালীন দুবার ব্যালন ডি’অর এবং ফিফা বর্ষসেরার সংক্ষিপ্ত তিনজনের তালিকায় নাম উঠেছিল  নেইমার এর (২০১৫-২০১৭)

কিন্তু নেইমারের খায়েশ হলো, তিনি একাই সব পারেন , কারো ছায়ায় থাকায় দরকার নাই তার। নিজে একটি দল হবে তার, যে দলটাকে মানুষ তার নামে চিনবে। সেই দলটাকে তিনি সেরা বানাবেন এবং নিজেও সেরা হবেন।

এই অতিরিক্ত লোভে পরে গেল বছর তিনি বার্সোলোনা থেকে  বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার হিসেবে যোগ দেন ফ্রান্সের ক্লাব পিএসজিতে।
কিন্তু বার্সোলনা আর মেসির সংস্পর্শ ছাড়ার পর ফিফা বর্ষসেরা হওয়া তো দূরে থাক, বর্ষসেরা হওয়ার প্রক্রিয়াতে একটি ভোট পর্যন্ত ভোট কপালে জুটে নাই নেইমারের। অর্থাৎ তিনি এমন কিছু করতে পারেন নাই বার্সোলনা ছাড়ার পরে যে কেউ তাকে একটি ভোট ও দিবে।

নেইমারকে আগে সবাই চিনতো সম্ভাবনাময়ী উজ্বল একজন স্ট্রাইকার হিসাবে। যার পায়ে অসাধারন যাদু রয়েছে। প্রতিপক্ষ ডিফেন্স দিশেহারা হয়ে যেত যার ড্রিবলিং এ। কিন্তু এখন মানুষ নেইমার কে চিনে একজন বিরক্তিকর অভিনেতা হিসাবে , অহেতুক এবং অতিরিক্ত ডাইভ দেয়ার জন্য। মানুষ এখন যানে নেইমার একজন মাঠের অভিনেতা যে অহেতুক এবং অতিরিক্ত ড্রাইভ দেয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

৯২ টি পূজা মণ্ডপে অনুদান দিলেন শাহীন আহমেদ

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ।একই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!