মুজিব কোট

বঙ্গবন্ধুর মুজিব কোট এর রহস্য

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি যিনি। দেশ স্বাধীন হবার পরে বাংলাদেশে প্রিয় এই নেতার যা যা প্রিয় ছিল,দেশের মানুষের কাছে তাই প্রিয় হয়ে উঠেছিলো। তখনকার বঙ্গবন্ধুর আশেপাশের লোকজন এমন কি তরুনরাও তাকে ফলো করতো অনেক। তার পোষাক আশাক সব কিছুতেই তাকে অনুকরন করা হতো।  সাদা পাঞ্জাবি-পায়জামা আর ৬ বোতামের কালো কোট , বঙ্গবন্ধুর বিশেষ পোশাক ছিলো । ৬ বোতামের কালো কোটটি পরবর্তীতে মুজিব কোট নামে বেশ পরিচয় পায়। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বহন করতো এই মুজিব কোট

বর্তমানে আওয়ামীলীগের বেশির ভাগ রাজনৈতিক নেতা কর্মীরা এই মুজিব কোট পড়ে থাকেন। শুধু তাই নয় বর্তমানে তরুন প্রজন্মের কাছে ও বেশ জনপ্রিয় এই মুজিব কোট। অনেক রাজনৈতিক নেতাদের মতে বঙ্গবন্ধুর এ মুজিব কোটকে ধারন করা মানে বঙ্গবন্ধুকে ধারন করার সামিল।

কিন্তু বঙ্গবন্ধু কেন ৬ বোতাম ওয়ালা এ কোট পরতেন তা জানেন কি ?? আওয়ামীলীগের অনেক নেতাই হয়তো জানেন না কেন পরতেন তিনি এ ৬ বোতাম ওয়ালা কোট।

ঠিক কত সাল থেকে বঙ্গবন্ধু  কালো কোট পরা শুরু করেছিলেন তার কোনো নির্দ্রিষ্ট সময় যানা যায় নি। তবে মাওলানা ভাসানী এবং শামসুল হক যখন আওয়ামী মুসলীম লীগ করলেন তখন  মোস্তাক আহমেদ ও  শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন। ধারণা করা হয়, তখন থেকেই বঙ্গবন্ধুকে এই কোট বেশি ব্যবহার করতেন । তবে এই কোটটির প্রচলন মূলত ভারতের ‘নেহেরু কোট’ থেকে।

স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ভারত উপমহাদেশ স্বাধীনের সময় বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের প্রতীক হিসাবে এই নেহেরু কোটের প্রচলন শুরু করেন। পরে বঙ্গবন্ধু এই কোটটি পড়তেন বলে এর নাম দেয়া হয় মুজিব কোট।

বিশিষ্ট সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেন জানান আগরতলা মামলার (১৯৬৮) সাল থেকে বঙ্গবন্ধু এই কালোকোট পড়া শুরু করেন।

স্বাধীনতার আগে শেখ মুজিবের গায়ের কোটটি কিন্তু কোন খ্যাতি বা নাম লাভ করে নি। মূলত স্বাধীনতার পরেই হাতকাটা এই বিখ্যাত কোটটি লাভ করে কাল জয়ী নাম। কোটটিতে ছিলো ৬টি বোতাম। শেখ মুজিবরের ৬ দফাই মূলত মুজিব কোটের ৬ বোতাম।

এই মুজিব কোটে ছিলো ৬টি বোতাম। মুজিব কোটের ৬ বোতাম মানেই শেখ মুজিবের ৬ দফা। স্বধীনতা ঘোষণার পূর্বে শেখ মুজিবের গায়ের কোটটি মুজিব কোট হিসেবে তেমন খ্যাতি লাভ করেনি। কালো হাতাকাটা এই বিখ্যাত কোটটি তখনও লাভ করেনি কালজয়ী কোনো নাম।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের এক ছাত্র তার বন্ধু তাজ উদ্দিনকে নিয়ে শেখ মুজিবরের সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন। শেখ মুজিবর কে তিনি অনেক কাছ থেকে দেখেছিলেন। কথাও বলেছিলেন অনেকক্ষন। কথা শেষে বঙ্গবন্ধু যখন কালো কোটটি জড়াচ্ছিলেন তখন ঐ ছাত্র লক্ষ করলেন কোট ছয়টি বোতাম। সাধারনত কোটে এর চেয়ে বেশি বোতাম থাকে। এসময় ছাত্রটি বঙ্গবন্ধুকে জিজ্ঞেস করেন আপনার কোটে বোতাম ছয়টি কেন ? তখন বঙ্গবন্ধু ছাত্রটিকে বুকে জড়িয়ে ধরে বলেন এর আগে এই প্রশ্ন কেউ আমাকে করে নি। তুই প্রথম। এই ৬ বোতাম আমার ছয় দফা দাবীর প্রতীক। ৬টি বোতাম মূলত বঙ্গবন্ধুর ঘোষিত ছয় দফার প্রতিকী বহন করে।

যারা যারা, মুজিব কোর্ট ব্যবহার করেন তাদের অধিকাংশই হয়তো জানেন না মুজিব কোটের ইতিহাস। তবে তারা বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসেন বলেন তার আদর্শ, পোষাক আসাক ফলো করেন।

আজ বঙ্গবন্ধু নেই , কিন্তু তার আদর্শ রয়ে গেছে ইতিহাসের পাতায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সফল নারী উদ্যোক্তা মেঘলার পথচলার গল্প

স্বপ্ন ছিলো নারী বলে বাঁকা চোখে তাকানো মানুষগুলোর চোখে সফলতার এক গল্প ছুঁড়ে দিব। সেই …

57 comments

  1. I simply needed to thank you very much again. I am not sure what I might have accomplished without the secrets revealed by you directly on that field. It truly was the horrifying scenario for me personally, but taking a look at this specialized tactic you solved the issue took me to weep with joy. Now i am happier for the service and even believe you find out what a powerful job you happen to be carrying out instructing the others thru your web site. I’m certain you’ve never met all of us.

  2. My spouse and i felt absolutely thankful that John managed to complete his reports out of the precious recommendations he grabbed while using the weblog. It is now and again perplexing to just be giving out concepts which often a number of people could have been making money from. We know we have got the writer to be grateful to for that. The most important illustrations you made, the easy site navigation, the friendships your site help to instill – it’s got many superb, and it’s really letting our son and the family do think the subject is excellent, which is certainly pretty fundamental. Thanks for the whole lot!

  3. I do consider all of the concepts you’ve offered on your post. They’re very convincing and can certainly work. Nonetheless, the posts are too quick for novices. May you please prolong them a bit from next time? Thank you for the post.

  4. What’s up it’s me, I am also visiting this web page regularly, this web page is genuinely good and the viewers are really sharing pleasant thoughts. sex angialand

  5. It’s perfect time to make a few plans for the long run and it’s time to be happy. I have learn this submit and if I may just I wish to recommend you few fascinating issues or tips. Maybe you can write next articles relating to this article. I want to read even more issues approximately it! giagocchudautu.blogspot.com: giagocchudautu.blogspot.com

  6. I am very much thankful for your efforts put on this article. This guide is transparent, updated and very informative. Can I expect you will post this type of another article in the near future?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!