নিরাপদ সড়ক

নিরাপদ সড়ক চাই অান্দোলনে নাশকতে করতে এসে দেশি অস্ত্রসহ ছাত্র গ্রেপ্তার!

ঢাকার কেরানীগঞ্জ তারানগর ইউনিয়নে ঘাটারচর এলাকায় অাজ সকালে নিরাপদ সড়ক চাই চলমান অান্দোলনের অংশ হিসেবে অাটি পাচ দোনা স্কুলসহ অাশ পাশের কয়েকটি স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী মিলে লাইসেন্স চেক করতে থাকে।
এসময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপস্থিত নেতা কর্মীদের একটি ছেলের অাচার অাচরনে সন্দেহ হলে তাকে অাটক করে পুলিশকে সোপর্দ করি।

পুলিশ তার কাধে থাকা স্কুল ব্যাগে তল্লাসি করে চাপাটি ছুরিসহ কয়েকটি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে থানায় নিয়ে অাসে।

অাটকৃতের নাম সাজ্জাতুল ইসলাম সৈকত, (১৮)সে ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন অাটিকুটি গ্রামের মোঃশফিকুল ইসলামের ছেলো।সৈকত মোহাম্মদপুর সরকারি কলেজের একাদ্বশ শ্রেনীর ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে তারানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ফারুক জানান,অাজ ঘাটারচর এলাকয় অাটি পাঁচদোনা উচ্চ বিদ্যালয়সহ অাশ-পাশের কয়েকটি বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা চলমান নিরাপদ সড়ক চাই অান্দোলনের অংশ হিসেবে গাড়ী চালকদের লাইনসেন্স চেক করছে।খবর পেয়ে সাথে সাথে অামি থানা পুলিশ ও স্থানীয় নেতা কর্মী নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই।যাতে করে অান্দোলনকারি ছাত্র-ছাত্রীরা কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা না করে এবং তাদের ওপর কোন রকম হামলা না হয়।

এসময় একটি ছেলের কাধে থাকা স্কুল ব্যাগের ওজন ও অাচার অাচরনে সন্দেহ হলে
তাকে সাথে সাথে অাটক করে পুলিশে সোপর্দ করি।পরে পুলিশ তার ব্যাগ তল্লাশি করে দেশিয় কয়েকটি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন,অান্দোলনকারি ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে অাটক হওয়া ছেলেটি নাশকতার সৃষ্টি করার জন্য অংশগ্রহণ করেন।স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও নেতাকর্মীরা তাকে অাটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করার পর অামরা তার মোবাইল ফোন যাচাই বাচাই করে জানতে পারি ছেলেটি ফেইবুকের মাধ্যমে চলমান অান্দোলনে অাসার জন্য উদ্ধত্ব করত ও বিভিন্ন উস্কানি মূলক তথ্য পাচার করত।তিনি অারো বলেন পুলিশের জিঙ্গাসাবাদে সে জানায়,অাজ অান্দোলনে নাশকতা সৃষ্টি করার জন্য ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাসা থেকে এগুলো নিয়ে এসেছে।এ ব্যাপারে এস অাই সাদিকুর রহমান বাদী হয়ে অস্ত্র ও তথ্য প্রযুক্তি অাইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে।

এ এইচ এম সাগর, নিউজ ঢাকা।

আরো পড়ুন: ডি.আই.জি হাবীবুর রহমান।

 

পুলিশ ও হাবিবুর রহমান এই দুটি নামের মাঝে নেই যেন কোনো পার্থক্য বিদ্যমান । পুলিশের এই স্বনামধন্য কর্মকর্তার হাত ধরে পুলিশ এগিয়ে গেছে অনেক দূর। আধুনিক ও জনবান্ধব এই পুলিশ কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান পুলিশ বাহিনীর সকল সুবিধা ,অসুবিধা সকল কিছুতেই তীক্ষ্ণ নজর রাখেন ।

নিজ বাহিনীর কল্যানে এই জনপ্রিয় পুলিশ অফিসারের উদ্যোগে একের পর এক পুলিশের নানা সমস্যার নিরসন হয়েছে, দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় শান্তির শপথে বলীয়ান যে পুলিশ সদস্যরা দিনরাত দেশের জন্য কাজ করতে গিয়ে শহীদ হচ্ছেন , মৃত্যু বরণ করছেন তাঁদের লাশ প্রিয়জনের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ইতিপূর্বে ছিলোনা তেমন কোন পরিবহন সুবিধা ডিআইজি হাবিবুর রহমানের উদ্যোগে অবসান ঘটলো সেই সমস্যারও।
কিছুদিন আগে পুলিশ মহাপরিদর্শক (IGP) ডঃ মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী ও ডিআইজি হাবিবুর রহমানের কাছে কনকর্ড গ্রূপের চেয়ারম্যান পুলিশকে এই লাশবাহী গাড়িটি হস্তান্তর করেছেন এ সময় পুলিশের আরো বিভিন্ন শাখার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণও উপস্থিত ছিলেন ।
সংক্ষেপে জেনে নিন হাবিবুর রহমানের কিছু পুলিশ কল্যাণ মুখী কর্মকান্ড
১) মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হাবিবুর রহমানের একান্ত উদ্যোগে মহান মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের অবদানকে স্মরণীয় ও চিরস্থায়ী করে রাখতে রাজারবাগে নির্মাণ করা হয় পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, জাদুঘরটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তিনি।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

শেরপুরের নকলায় বয়স্ক ভাতা বিতরণ

রাইসুল ইসলাম রিফাত (শেরপুর প্রতিনিধি): শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় সমাজসেবা অধিদপ্তরাধীন সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আওতায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!