লাশের পরিচয়

বুড়িগঙ্গা নদী থেকে উদ্ধার হওয়া ভাসমান শিশুর লাশের পরিচয় মিলেছে

রবিবার সকালে বুড়িগঙ্গা নদীর কামালবাগ খেয়াঘাট এলাকা থেকে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ কর্তৃক উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাতনামা ভাসমান শিশুর লাশের পরিচয় মিলেছে। নিহত শিশুর নাম আব্দুল কাদের। সে রাজধানীর পোস্তা ফাঁড়ির গলি এলাকার টেমপোসি কিন্ডার গার্টেনের প্রথম শ্রেনীর ছাত্র। সে মা-বাবার সাথে

রাজধানীর কামরাঙিরচর থানার শহিদ নগর এলাকায় জনৈক হাজি শুক্কুর মিয়ার ভাড়াটে বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তাদের দেশের বাড়ি কুমিল্লা জেলার চাদঁপুর থানার সেরুদিয়া গ্রামে। তার পিতার নাম মোঃ ইব্রাহিম খলিল ও মা নাসরিন আক্তার। গতকাল মঙ্গলবার নিহতের পিতা-মাতা ও স্বজনরা আব্দুল কাদেরের ছবি নিয়ে থানায় আসে পরে হাসপাতাল মর্গে গিয়ে লাশ সনাক্ত করেন।
নিহত শিশুর মা নাসরিন আক্তারের বরাদ দিয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এস আই মেহেদী হাসান জানান, তাদের দুই ছেলে ও এক মেয়ে। নিহত আব্দুল কাদের সবার ছোট। ১৪ ফেব্রুয়ারী সকালে সন্তানদের বাড়িতে রেখে তারা স্বামী-স্ত্রী কাজে চলে জান। রাতে বাড়িতে ফিরে তারা ছোট ছেলে আব্দুল কাদেরকে খুজে না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোজাখুজি করতে থাকে। দুই দিন পর তারা জানতে পারে বুড়িগঙ্গা নদী থেকে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ একটি শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে। এ সংবাদের ভিত্তিত্বে তারা নিহত শিশুর ছবি নিয়ে থানায় আসে। আমি ছবি ও তাদের মুখের বিবারন শুনে বুজতে পারছিলাম উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত শিশুটি তাদের সন্তান আব্দুল কাদেরের। তারপরও তাদের হাসপাতাল মর্গে পাঠাই। সেখানে গিয়ে তারা আব্দুল কাদেরের লাশ দেখে সনাক্ত নিশ্চিত করেন। তবে কিভাবে নদীর পানিতে ডুবে মারা গেছে জানাযায় নি। উল্লেখ ঃ গত রবিবার সকালে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ এলাকাবাসির সংবাদের ভিত্তিত্বে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ‘ডাকাত’ নিহত

কেরানীগঞ্জে ডিবি পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিব্ধ হয়ে অজ্ঞাতপরিচয় (২৫) ডাকাত নিহত হয়েছেন। রোববার দিবাগত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!