স্যোশাল মিডিয়া

স্যোশাল মিডিয়া য় বেপরোয়া নায়িকা বিন্দিয়া

বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত বাড়ছে ফেসবুক বা স্যোশাল মিডিয়া য় ব্যবহারকারীর সংখ্যা। অনলাইনে যতগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আছে, তারমধ্যে ফেসবুকই সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়।

আর, এই স্যোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের একটি বড় অংশ তরুণ। বর্তমানে বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় সাত কোটি। মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১২ কোটিরও বেশি। তার মধ্যে প্রায় ছয় কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করেন নিজেদের মুঠোফোনে, আর তার অর্ধেক সংখ্যক মানুষ ফেসবুকে যুক্ত। মূলত এটি পারস্পরিক যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। এর যেমন ইতিবাচক দিক আছে তেমনি নেতিবাচক দিক ও আছে।

তবে অনেকের ক্ষেত্রে নেতিবাচক দিকটাই ফেসবুকে বেশি পরিলক্ষিত হয়। যেমন কিছুদিন আগে ঢাকার উত্তরা এলাকায় এক কিশোর হত্যার ঘটনায় তরুণদের ফেসবুক ব্যবহারের চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে। তারা ফেসবুক পেজ খুলে গড়ে তুলেছিল সন্ত্রাসী দল। এছাড়া ফেসবুক ব্যবহার করে তরুণীদেরকে প্রেমের কথা বলে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনাও ঘটছে। ঘটছে ব্ল্যাকমেইলিং।

 

তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে ইন্টারনেট কিংবা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম নির্ভর অনেকেই ভুগছেন নিরাপত্তাহীনতায়। বিশেষ করে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন।রেহাই পাচ্ছেননা জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, ধনাঢ্য ব্যক্তিত্ব। রেহাই পাচ্ছেন না পুলিশ প্রশাসনের লোকজনও।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের এমন একজন উঠতি নায়িকা বিন্দিয়া কবির-এর ফেসবুকে প্রোফাইলে পাওয়া গেল নানা রকম তথ্য। বলতে গেলে  বিন্দিয়াকে সচারচর ফেসবুকে পাওয়া যাবে কোন না কোন অভিযোগ নিয়ে।  তার হেয় প্রতিপন্ন অভিযোগের তীরে বিদ্ধ হচ্ছেন জনপ্রতিণিধি,পুলিশের লোক,চলচ্চিত্র প্রযোজক অথবা স্বজনদের অনেকেই। যখনই তার সাথে কারো ঝামেলা হচ্ছে তখনই হাজির হচ্ছে স্যোশাল মিডিয়ায়।  অনেকের মান সম্মান নষ্ট হচ্ছে তার এমন সব স্টাটাসে। অনেকের জীবন নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কে এই বিন্দিয়া?

খুলনার মেয়ে বিন্দিয়া। প্রয়াত নাজিম উদ্দিন চেয়ারম্যানের আবিস্কার এই বিন্দিয়া। দাবাং ছবির মাধ্যমে প্রথমে চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন। অশ্লীলতার দায়ে ব্যাপক অভিযুক্ত ও সমালোচিত হয়। এছাড়া মাস্তান পুলিশ, মার্ডার-২,বদলা নিবো বাশর ঘরে ও মাঝির প্রেম চলচ্চিত্রে অভিনয় করে, কিন্তু অশ্লীলতার দায়ে ব্যাপক অভিযুক্ত ও সমালোচিত এই অভিনেত্রী। তার ফেসবুক প্রোফাইলে দেখা যায় তার নিজের আত্মীয় স্বজনের বিরুদ্ধে ও পোষ্ট করছেন তিনি।

বিন্দিয়ার বিরুদ্ধে খুলনা, ঢাকা,কক্সবাজার,রামুসহ বেশ কয়েক স্থানে বিভিন্নজনের অভিযোগ রয়েছে আমাদের কাছে। পরবর্তিতে অভিযোগ গুলো যাচাই-বাচাই ও সরেজমিন তদন্ত করে ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশ করা হবে।

 

তবে আপাতত: বিন্দিয়া কবিরের ফেসবুক থেকে পাওয়া তথ্যের আলোকে এই সংবাদ পরিবেশন করা হল । তবে এব্যাপারে বিন্দিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায় বিধায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্বব হয়নি।

তথ্যসূত্র : ফেসবুক

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কণ্ঠশিল্পী আল মামুনের জন্মদিন আজ

মোঃএনামুল হক বাবু, বিনোদন প্রতিবেদন: আজ ৫ জানুয়ারী। ২০২১১৯৮২ সালের আজকের এই দিনে শেরপুর জেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!