কেরানীগঞ্জে গনপিটুনি তে আহত সন্ত্রাসীর মৃত্যু

কেরানীগঞ্জে এলাকাবাসীর গনপিটুনি তে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোঃ মোমিন (৩৮) নামে এক সন্ত্রাসীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

গত রোববার রাতে জিনজিরার হাউলী জুম্মা মসজিদের পেছনে একটি বাড়িতে গনপিটুনির শিকার হয়েছিলেন তিনি। মোমিনের বাবার নাম হাজি মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব। তার গ্রামের বাড়ি জিনজিরা হুক্কাপট্রি এলাকায় ।
এলাকা সুত্রে জানা যায়, মোমিনের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডই ছিল তার মূল কাজ। গত রোববার রাতে স্থানীয় একটি মার্কেটের ব্যবসায়ীদের কাছ চাঁদা দাবী করে মোমিন। বিষয়টি মার্কেটের লোককজন স্থানীয় লোকজন ও মার্কেট কর্তৃপক্ষের নিকট জানান।

পরে সবাই একত্রিত হয়ে মোমিনের বাসার দিকে রওনা দিলে তাকে বাড়ির নীচেই পাওয়া যায়। চাঁদার বিষয়টি মোমিনের কাছে জানতে চাইলে মোমিন সবাইকে উচ্চ বাচ্চ করে গালাগালি দিতে থাকেন। এক পর্যায়ে মোমিন তাদের উপর হাত তুললে উপস্থিত সবাই মোমিনকে তার বসত ঘরের ভিতরেই গনপিটুনি দিয়ে আহত করে চলে আসে।

এরপর মোমিনের স্বজনরা খবর পেয়ে আহতবস্থায় উদ্ধার করে রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকার একটি ক্লিনিকে ভর্তি করেন। সেখানে প্রায় চারদিন চিকিৎসা নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মারা যান।
এ ঘটনায় নিহত মোমিনের স্ত্রী রুপা বেগম জানান, ঘটনার দিন আমার স্বামী রাত সোয়া ১০টার সময় নীচে যাই বলে বাসা থেকে বের হয়। এর কিছুক্ষন পর নীচে আমার ম্বামীর সাথে এলাকার লোকজনের সাথে তর্কবিতর্ক করতে দেখি। এক পর্যায়ে আমার স্বামীকে তারা রড, লাঠি সোডা নিয়ে এলো পাথারী পিটাতে থাকে । এ সময় আমি আমার একমাত্র কন্যা সিমিকে নিয়ে ৫ম তলার একটি ফ্লাটে লুকিয়ে থাকি।

নিহতের পিতা হাজি মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, আমার ছেলে আমার কাছে থাকতেন না। সে জিনজিরা এলাকায় হায়দার বিরিয়ানি হাউজের ৬ষ্ঠ তলায় স্ত্রী-সন্তান নিয়ে থাকতেন। আমার ছেলে কি এমন অপরাধ করেছিল যে তাকে এভাবে পিটিয়ে হত্যা করতো হলো।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, নিহত মোমিন সন্ত্রাসী প্রকৃতির ছিল। রোববার রাতে এলাকাবাসীর গনপিটুনিতে সে গুরুতর আহত হয়। পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে স্বজনদের চিকিৎসার জন্য দেন। পরে তার রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকায় ক্লিনিকে ভর্তি করেছিলেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে সেখানে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জে অসহায়দের কম্বল দিলেন ঢাকা জেলা পুলিশ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে অসহায় ও দরিদ্র শীতার্ত মানুষের হাতে কম্বল তুলে দিয়েছেন ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!