অযত্ন

অযত্ন – অবহেলার স্বীকার-হিন্দু সম্প্রদায়ের কলেজ পাড়া পূজা মন্দির

১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত কলেজ পাড়া পূজা সংসদ। হিন্দু সম্প্রদায়ের এই আদিম মন্দিরটি আজ পরিচালনাকর্তার অযত্ন, অবহেলায় ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ।আনুমানিক ১৯৯০ সালে পূজা সংসদের কর্তাব্যক্তি হিসেবে প্রবেশ করেন স্বর্গীয় উত্তম চৌধুরী। তিনি ছিলেন জাতীয়পার্টির একজন দাপটে নেতা ও টাংগাইল কোর্টের এ.পি.পি।

উত্তম চৌধুরী পরলোক গমনের পর মন্দিরের দায়িত্ব পালন শুরু করেন তার পরিবার। হিন্দু সম্প্রদায় অভিমান প্রকাশ করে বলেন উত্তম চৌধুরীর অনুপস্থিতির পর থেকে তার পরিবার মন্দিরের বিভিন্ন কার্যক্রমে এক তরফা সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে থাকেন। এবং দীর্ঘদিন থেকে তারা মন্দির সংস্কারের দাবি জানালেও তাতে বিন্দু মাত্র আগ্রহ নেই বর্তমান পরিচালনাকর্তার।
মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুজিত কুমার সাহা জানান, দু’মাস যাবত মন্দিরের খালি জায়গায় ইট রেখেছেন তাতে প্রতিনিয়ত প্রণাম করতে আসা আমাদের হিন্দু সম্প্রদায়ের সকল ব্যক্তিদের ভোগান্তির স্বীকার হতে হয়।

এতে পূজা মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক: সুজিত সাহা ও এই পূজা কমিটিতে থাকা অন্যান্য সম্পাদক ও সদস্যদের ও অন্যান কিছু হিন্দুদের মন্দিরের প্রতিমা ভাংগা ও ডাকাতির মিথ্যা মামলা দেওয়ার হুমকি দেন এবং বলেন মন্দিরের জায়গা তাদের পৈত্বিক সম্পত্তি সার্বজনীন নয়। বর্তমানে মন্দিরের সামনে ইট রেখে সকল পূজা ও হিন্দুধর্মীয় কর্মকাণ্ড স্থগিত রেখেছেন।

টাংগাইল প্রতিনিধি : হাসান খান
নিউজ ঢাকা ২৪

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

রাঙামাটিতে অব্যাহত গোলাগুলি ও চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

মোঃমহিউদ্দিন, বাঘাইছড়ি,প্রতিনিধিঃ রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় সাধারণ মানুষের জান মালের নিরাপত্তার স্বার্থে ও পাহাড়ী আঞ্চলিক সশস্ত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!