রাত

১ রাত জেলে কাটিয়ে জামিন পেল সালমান খান

অবশেষে বহু প্রত্যাশিত সেই জামিন পেলেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। গত বৃহস্পতিবার যোধপুরের একটি আদালত বেআইনিভাবে কৃষ্ণসার প্রজাতির দুটি হরিণ হত্যার দায়ে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেছিলেন সালমানকে।

এর আগে, আজ ভারতীয় সময় ১০টা ৪০ থেকে জামিন আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হয়। সালমান খানের জামিন শুনানিতে বাদী-বিবাদী উভয় পক্ষের বাদানুবাদ শোনেন সেশন জজ রবীন্দ্র কুমার যোশী। অতঃপর তিনি দুপুরের পর রায় প্রদান করবেন বলে জানান।

দুপুরের পর রায় প্রদান করেন সেশন জজ। তিনি সালমান খানের জামিন মঞ্জুর করেন।

এ-প্রসঙ্গে সালমানের আইনজীবী বলেন, আমরা বিচারিক আদালত কর্তৃক প্রদত্ত রায়কে চ্যালেঞ্জ করিনি। আমরা শুধু জামিন চেয়েছি।

ইতিমধ্যে দুই রাত যোধপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে কাটাতে হয়েছে ‘দাবাং’ তারকাকে।
সূত্র : চ্যানেল ১৮, এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া

আরো পড়ুন: সাইবার হামলা আবারো।

 

=========================================

 

অাবারো বিশ্বজুড়ে সাইবার হামলা

অনলাইন ডেস্কঃ
বেশি ক্ষতি যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ভারতের
বিশ্বজুড়ে ফের সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। ভয়াবহ এ সাইবার হামলায় বিভিন্ন দেশের অন্তত ২ লাখ রাউটার আক্রান্ত হয়েছে। এতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ভারতের কম্পিউটারগুলো।
এর আগে গত বছরের জানুয়ারিতে সারা বিশ্বের প্রায় ২০০টি দেশ সাইবার হামলার শিকার হয়েছিল। বেশ কয়েকটি দেশে একসঙ্গে সাইবার আক্রমণ চালিয়েছে হ্যাকাররা।
এর মধ্যে ইরানের ডেটা সেন্টারও আছে। ডেটা সেন্টারের ওয়েবসাইট হ্যাক করে মার্কিন পতাকা রেখে সেখানে হুমকি দেয়া হয়, আমাদের নির্বাচনে বিশৃঙ্খলা করো না। ইরানের যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।
বিস্তৃত এই হামলায় সারা বিশ্বের প্রায় ২ লাখ রাউটার ও ডিভাইস ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারদের লক্ষ্য করে চালানো ওই হামলার কারণে ব্যবহারকারীরা সে সময় অনলাইনে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হচ্ছিল।
যুক্তরাষ্ট্রের ৫৫ হাজার ডিভাইস এবং চীনের ১৪ হাজার ডিভাইস আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ইরানের ৩৫০০ সুইচ। সেই হিসেবে ইরানের আক্রান্ত ডিভাইসের পরিমাণ ২ শতাংশ।
শনিবার ইরানের তথ্য ও প্রযুক্তিমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ আজারি-জাহরোমি জানান, শুক্রবার রাতে হ্যাকাররা তাদের বেশ কয়েকটি সাইটে হামলা চালায় এবং প্রায় কয়েক ঘণ্টাব্যাপী বিভিন্ন নেটওয়ার্ক সাইট বন্ধ করে দেয়।
জাভেদ আজারি মার্কিন পতাকা ও হ্যাকারদের বার্তাসহ হামলার শিকার কম্পিউটার স্ক্রিনের একটি ছবি টুইটারে পোস্ট করেন। কারা ওই সাইবার হামলা চালিয়েছে তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।
জাভেদ আজারি বলেন, আমরা ইতিমধ্যেই জটিলতা কাটিয়ে উঠেছি এবং ভোক্তাদের জন্য ইন্টারনেটে প্রবেশ উন্মুক্ত করতে সক্ষম হয়েছি। গ্রাহকদের ক্ষতিগ্রস্ত ফাইলগুলো পুনরুদ্ধার করার চেষ্টা চলছে।
হামলায় বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ইউরোপ, ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র বলে এক সাক্ষাৎকারে মন্তব্য করেছেন তিনি। ইরানের ইনফরমেশন টেকনোলজি অর্গানাইজেশন অব ইরানের উপপ্রধান হাদি সাজাদি বলেন, ঘণ্টাখানেকের পরেই হামলা অকার্যকর করে দেয়া হয় এবং কোনো তথ্য হারিয়ে যায়নি।
বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এই হামলার ব্যাপারে সতর্কবার্তা দিয়েছিল মার্কিন আইটি সংস্থা সিসকো। সঙ্গে নিরাপত্তার জন্য কিছু সুবিধাও দিতে চেয়েছিল কিন্তু ইরানের নতুন বছরের ছুটির কারণে কিছু সংস্থা সেসব গ্রহণ করতে পারেনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

৪০ বছর ধরে ২টি সন্তানকে বুকে আগলে রেখেছেন মা

শাহাদাত হোসেন অভ্র: এদিক-ওদিক চলছে দুই সন্তান তাদের সামলাতে ব্যস্ত মা। কখনো খাবার হাতে কখনো …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!