সাকার ফিস

সাকার ফিস নিয়ন্ত্রণে কেরানীগঞ্জে জনসচেতনতামূলক ও মত বিনিময় সভা

সাকার ফিশ বা চোষক মুখী মাছ একটি স্বাদুপানির মাছ। এই মাছ কোস্টারিকা, পানামা এবং দক্ষিণ আমেরিকায় ব্যাপকভাবে বিস্তৃত তবে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে এটি প্রবেশ করেছে এবং চীন,মায়ানমার এরপর বাংলাদেশেও এটি প্রবেশ করেছে।

আশির দশকে শুরুর দিকে একুয়ারিয়াম ফিশ হিসেবে এদেশে প্রবেশ করে ইদানিং উন্মুক্ত জলাশয়সহ বদ্ধ জলাশয়েও বিস্তৃতি লাভ করেছে। অত্যন্ত বিরুপ পরিবেশেও টিকে থাকতে পারা এ মাছটি জলাশয়ে দ্রুত বংশ বিস্তার করে যা দেশীয় প্রজাতির মাছের জন্য অত্যন্ত হুমকি স্বরুপ।

এ বিষয়কে আমলে নিয়ে মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী শামস আফরোজের নির্দেশনা মোতাবেক ঢাকা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সাকার ফিশ নির্মূলের নিমিত্ত আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করেন। সে আলোকে মঙ্গলবার সকালে কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন কুশিয়ারবাগ জেলে পাড়া এলাকায় স্থানীয় জলজ বাস্তুতন্ত্রের জন্য ক্ষতিকর সাকার ফিস নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতামূলক ও মতবিনিময় সভা করেন।

উক্ত সভায় কেরানীগঞ্জ উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সেলিম রেজার সভাপতিত্বে  উপস্থিত ছিলেন মৎস্য অধিদপ্তরের উপপরিচালক (মৎস্যচাষ) ড. মোঃ খালেদ কনক,  ঢাকা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মুহাম্মদ মামুনুর রশীদ,  মৎস্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (মৎস্যচাষ) মুহাঃ নওশের আলী, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (রিজার্ভ) সামসুজ্জামান মাসুম ও সহকারী প্রকল্প কর্মকর্তা জামাল উদ্দিন।

এসময় সাকার ফিস সম্পর্কে জেলেদের নিকট থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহের পাশাপাশি জেলেদের এ মাছ সম্পর্কে সচেতন করা হয়।  উন্মুক্ত ও বদ্ধ জলাশয় হতে ধৃত মাছ জলাশয় হতে নিরাপদ দূরত্বে মাটিতে পুতে ফেলার জন্য সকলকে সোচ্চার আহবান জানিয়ে নদী হতে সাকার ফিশ ধরে তাৎক্ষণিকভাবে মাটিচাপা দিয়ে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা হয়।

 

নিউজ ঢাকা ২৪

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জে শিশু চুরি করে পালানোর সময় এক যুবক গ্রেপ্তার

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে শুক্রবার সন্ধ্যায় সংবাদের ভিত্তিতে চুনকুটিয়া বউ বাজার এলাকা থেকে মোঃ সাব্বির(২১) নামের …

error: Content is protected !!