করোনার ধাক্কা কাটিয়ে না উঠতেই কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা

মো: সিফাত হোসেন মোল্লা। কেরাণীগঞ্জের কালীগঞ্জে অবস্থিত নুরু মার্কেটে প্রায় ২০ বছর যাবৎ জিন্স প্যান্টের ব্যবসা করছেন। পর পর দুই দফা করোনার ধাক্কায় পুজি হারিয়ে অসহায় হয়ে পরেছিলেন তিনি। বিভিন্ন জায়গা থেকে লোন করে আবারো যখন ঘুড়ে দাড়ানোর স্বপ্ন দেখছিলেন, ঠিক তখন ই ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে মুহুর্তেই ছাই হয়ে যায় সিফাত হোসেন মোল্লার সাজানো সকল স্বপ্ন।

সব হারিয়ে এখন পথের ফকির সিফাত হোসেন মোল্লা। রবিবার রাত সাড়ে দশটায় কালিগঞ্জের নুরু মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় সিফাত হোসেনের মতো এমন আরো অনেক ব্যবসায়ী সব হারিয়ে পথে বসতে চলেছেন।
সোমবার সরেজমিন কালিগঞ্জ নুরু মার্কেট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রায় ৮০-৯০ টি দোকান পুরে ছাই হয়ে গেছে। মো: নুরুল আমিন, সোহেল, রবিউলসহ আরো কয়েকজন স্থানীয় ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়, রবিবার রাত ১০.৩০ মিনিটে হঠাৎ করেই একটি বিকট একটি শব্দে নুরু মার্কেট এলাকায় বৈদ্যুতিক ট্রান্সফর্মারের বিষ্ফোরন ঘটে। মূলত বৈদ্যুতিক ট্রান্সফর্মারের বিষ্ফোরন থেকেই আগুনের সুত্রপাত হয় বলে জানান তারা। এরপরে মুহুর্তেই আগুন ছড়িয়ে পরে।

ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে রাত ১১ টার মধ্যেই ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট ঘটনা স্থলে চলে আসে। দীর্ঘ সময় চেষ্টা করার পরেও যখন আগুন নিয়ন্ত্রনে আসছিলো না, তখন মুষলধারে বৃষ্টি আসলে আগুন নিভানোর কাজ অনেকটা সহজ হয়ে যায়। রাত ১২.৪০ এর দিকে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

কেরানীগঞ্জ দোকান মালিক ও ব্যবসায়ী সমিতির কোষাধক্ষ্য শেখ কাওসার জানান, গতকালের অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রায় ৯০টির মতো দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। করোনার ধাক্কা কাটিয়ে উঠার পরে যখন ব্যবসায়ীরা ঘুড়ে দাড়ানোর চেষ্টা করছিলো তখন ভয়াবহ অগ্নিকান্ড সব কিছু শেষ করে দিলো।

কেরানীগঞ্জ দোকান মালিক ও সমবায় সমিতির সাধারন সম্পাদক মুসলীম ঢালী জানান, অগ্নিকান্ডের ঘটনায় সব মিলিয়ে প্রায় ২০ কোটি টাকার উপরে ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। সব কিছু হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছে ব্যবসায়ীরা। তাদের সান্তনা দেয়ার কোন ভাষা আসলে জানা নাই। একে তো মাথায় লোনের বোঝা তার উপরে আগুনে সব হারিয়ে ফেলেছে তারা। তারা কিভাবে ঘুড়ে দাড়াবে এখন ? আমরা মালিক সমিতির পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাড়িয়ে সর্বাত্মক সহায়তা করবো।

কেরানীগঞ্জ দোকান মালিক ও ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি স্বাধীন শেখ বলেন, ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা যেন ঘুড়ে দাড়াতে পারে সেই ক্ষেত্রে প্রতিটি দোকানের জমিদারদের সাথে বসবো, তারা যেন দোকান পুনরায় নির্মানের ক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে কোন টাকা না নেয়। ক্ষতির পরিমান অনেক টাকা। আমরা মালিক সমিতির পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের পাশে থেকে সর্বাত্মক সহায়তার চেষ্টা করবো।

 

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশন এন্ড মেইনটেনেন্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিল্লুর রহমান তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় গতকাল রাতে জানান, আগুন লাগার খবর শুনে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। মার্কেটের গলি অনেক সরু থাকায় অগ্নিনির্বাপক কর্মীদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে। তবে মার্কেটে নিজস্ব কোন অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা না থাকায় প্রাথমিকভাবে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে চাইলেও তাতে ব্যর্থ হয়। ফায়ার সার্ভিস এর পক্ষ থেকে চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত শেষে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যাবে।#

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরাণীগঞ্জে র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও বিয়ারসহ পাচ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

ঢাকার কেরাণীগঞ্জে র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ১৯,৬৪৫ পিস ইয়াবা ও ৭২০ ক্যান বিয়ারসহ ০৫ মাদক ব্যবসায়ী …

error: Content is protected !!