জবি শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে স্মারকলিপি

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ আকবর হোসাইন রাব্বির রহস্যজনক মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবিতে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হকের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে শিক্ষার্থীরা।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, গত ২৭ আগষ্ট ১২তম ব্যাচের ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ আকবর হোসাইন রাব্বি খান পুরান ঢাকার মেস থেকে বেরিয়ে যায় এবং তার সহপাঠীরা বিভিন্ন সময় ফোনে যোগাযোগ করলে আশেপাশে অবস্থান করছে বলে জানায়। সর্বশেষ রাতে যখন তাঁর সাথে যোগাযোগ করা হয় তখন সে একটু পর বাসায় ফিরবে বলে তার বড় বোনকে জানায়। অতঃপর রাত ৮.৫৩ ঘটিকার দিকে জানা যায় সে চট্টগ্রামের একটি ফ্লাইওভার থেকে নিচে পড়ে যায় এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞান ও আহত অবস্থায় আকবরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হসপিটালে ভর্তি করেন।

চিকিৎসায় দায়িত্বরত ডাক্তার ও পুলিশের তদন্ত ও প্রাপ্ত আলামতের ভিত্তিতে এটি স্পষ্টত হয় যে, এটি কোন আত্মহত্যা কিংবা দুর্ঘটনার কেইস নয়। কারণ তাকে অজ্ঞান ও আহত অবস্থায় ফ্লাইওভার থেকে ফেলে দেয়া হয় বলে সূত্রমতে জানা যায়। এমনি আরো অনেক সূত্র পুলিশের কাছে রয়েছে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রামের খুলশী থানায় আকবরের পরিবার একটি মামলাও করেছেন।

স্মারকলিপিতে আরও বলা হয়, চিকিৎসাধীন অবস্থায় আকবর হোসাইন এর অবস্থা ছিল খুবই আশঙ্কাজনক এবং পরবর্তীতে গতকাল ( ০১ সেপ্টেম্বর) ভোর ৪.৫০টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে। আমরা খুবই হৃদয়বিদারক ও ব্যথিত কণ্ঠের বলতে চাই, আমাদের সহপাঠীর সাথে খুব অন্যায় করা হয়েছে। আমার ধারণা তাকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ আমাদের একজন সহপাঠীর এমন রহস্যজনক দূর্ঘটনা ও মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত এবং দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।

এদিকে অনতিবিলম্বে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের আইনের আওতায় না আনলে কঠোর মানববন্ধন কর্মসূচি ও প্রয়োজনে আমরণ অনশনের কথাও উল্লেখ করা হয় স্মারকলিপিতে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোস্তফা কামাল বলেন, আমি কিছুক্ষণ আগেই থানায় কথা বলেছি। ঘটনার দিন ও (আকবর) হোয়াটস অ্যাপ এবং ইন্সট্রাগ্রাম ব্যবহার করে কথা বলেছে। কিন্তু সেগুলা ফোনে ডিলেট করা। চট্টগ্রাম খুলশি থানা পুলিশ এগুলো উদঘাটন করার জন্য ঢাকায় ডিবিতে পাঠিয়েছে। শীঘ্রই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

প্রধানমন্ত্রী ‘মুকুট মণি’ সম্মাননা পাওয়ায় কুবি ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

কুবি প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার ও মুকুট মণি’ সম্মাননায় ভূষিত করায় আনন্দ মিছিল …

error: Content is protected !!