বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বাঙ্গালি জাতির ভাগ্যকে হত্যা করা হয়েছে – শাহীন আহমেদ

 ১৫ ই আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান,বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সহ সপরিবারে শহীদ হওয়া সকল সদস্য  ও ২১ শে গ্রেনেড হামলায়্  সকল শহীদের স্মরণে আলোচনা সভা ও তোবারক বিতরণের আয়োজন করেন কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ছাত্রলীগ ও সরকারি ইস্পাহানি কলেজ ছাত্রলীগ।
মঙ্গলবার ( ৩১ শে আগষ্ট ) কেরানীগঞ্জ উপজেলার সরকারি ইস্পাহানি কলেজ মাঠে এ আলোচনা সভা ও তোবারক বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়
অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের আহবায়ক শাহীন আহমেদ, এসময় তিনি  বলেন যে মানুষটির জন্ম না হলে আমরা আজ এ স্বাধীন দেশ পেতাম না, তার জন্ম না হলে আমরা আজ বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারতাম না, বাংলাদেশ নামক কোন ভূখণ্ড পেতাম না, সে মহান নেতা  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান কে যারা সপরিবারে হত্যা কে করেছে করেছে আমি তাদের প্রতি ঘৃণা জাানাই তারা শুধু বঙ্গ বঙ্গবন্ধু কে হত্যা করেনি তার  বাঙ্গালি জাতি কে হত্যা করেছে তারা বাঙালী জাতির ভাগ্য কে হত্যা করেছে, বঙ্গবন্ধু যদি আরো ১৫ টি বছর রাষ্ট্র ক্ষমতায় থেকে বাংলাদেশ কে পরিচালিত করতে পারতেন তাহলে বাংলাদেশ
হতো বিশ্বের অর্থনীতি সমৃদ্ধ  বাংলাদেশ,বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলার এগিয়ে যাচ্ছে তার সুযোগ্যকন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ সাবমেরিনের বাংলাদেশ, বাংলাদেশ আজ পদ্মা সেতুর বাংলাদেশ, বাংলাদেশ আজ পারমাণবিক বিদ্যুৎ পাওয়ার প্লান্টের বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধুর পর জননেত্রী শেখ হাসিনাকেও প্রায় ১৭ বার হত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন আল্লাহর অশেষ রহমতে তিনি বেঁচে আছেন, তাই আমি বলেতে চাই আমাদের ঐক্যের কোন বিকল্প নেই  বাংলাদেশ ছাত্রলীগই হচ্ছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের চালিকা শক্তি তাই আমি মনে করি ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মীকে বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে বুকে ধারণ করতে হবে।
কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমাম হাসান ফয়সালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সোহরাব হোসেন খোকন, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এম এ গফুর,জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামী যুব মহিলা লীগের আহবায়ক শিলারা ইসলাম।
সরকারী ইস্পাহানি কলেজের সভাপতি শাহ্ জালাল অপুর সঞ্চালনায় মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন  শাক্তা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী সালাউদ্দিন লিটন, কলাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান তাহের আলী,বাস্তা ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আশকর আলী,ইউনিয়ন আওয়ামরলীগের সভাপতি হাজী জে এ জিন্নাহ, কালিন্দী ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মোজাম্মেল হোসেন, তারানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ফারুক, আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোঃ আরজু মিয়া বেনু,সাবেক ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন রাজিব , কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা, সরকারি ইস্পাহানি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নূর আলম সহ এসময় জেলা, থানা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও  বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা এসময় উপস্থিত ছিলেন
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সাকার

সাকার এর দখলে বুড়িগঙ্গা নদী

রাজধানী ঢাকার বুড়িগঙ্গা নদীতে সম্প্রতি আতেেঙ্কর আরেক নাম সাকার ফিশ । দ্রæত বংশ বিস্তারকারী এই …

error: Content is protected !!