জবি শিক্ষার্থী ও তার পরিবারের উপর হামলা

জবি প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে(জবি) এক শিক্ষার্থী ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে হামলা ও লুটতরাজ করেছে প্রতিবেশী তাজুল ইসলাম হায়দার।শনিবার (৭ই আগস্ট) কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদি উপজেলার লোহাজুরী ইউনিয়নের উঃলোহাজুরীর ৬ নং ওয়ার্ডে সোরহাবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়,হামলার শিকার আব্দুল্লাহ ফাহাদ জাকিরের বাড়ির জমিতে জোরপূর্বক ঘর উঠাতে চাই তাজুল ইসলাম হায়দার। তাজুল ইসলাম হায়দার অবৈধভাবে জমি দখল করে ঘর উঠাতে চাইলে বাধা দেয় আব্দুল্লাহ ফাহাদ জাকির ও তার পরিবারের সদস্যরা।এসময় তাদের উপর হায়দারের পিতা ফজু ও পূর্বচরের ইসলাম উদ্দিনের নির্দেশে হায়দারের নেতৃত্বে এবং ফরিদ ও মমতার যোগসাজশে ১০-১৫ জন মুখোশ (মাস্ক) পড়া সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। এ হামলায় জবি শিক্ষার্থী জাকির, তার ছোট ভাই,বড় ভাই,তার মা গুরুতর জখম হয়ে উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। হামলার সময় আব্দুল্লাহ ফাহাদ জাকিরের বোন ও ভাবির অলংকার লুট করে।

হামলায় আহত ও জখম জবি শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ ফাহাদ জাকির বলেন,আমাদের জায়গায় ঘর উঠানোতে বাঁধা দিলেই সন্ত্রাসী হামলা করবে এটা আমাদের জানা ছিল না। ইউনিয়নের ঝিড়ারপাড়,বাহেরচর ও পূর্বচরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে ভাড়াটে সন্ত্রাসী ও গুন্ডা এনে হত্যার উদ্দেশ্যে সশস্ত্র হামলা হয়েছে আমাদের উপর। পূর্বপরিকল্পিত সন্ত্রাসী হামলায় আমাদের সবাইকে মারাত্মক জখম করে,টিনের দেয়াল ও বাড়িঘর ভাঙচুর করে লুটতরাজ চালায়।এসময় তারা আমার বোন ও ভাবির অলংকার লুটে নেয়, আমার ছোট ভাইয়ের মাথায় কুপায় ফলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে।

তিনি আরো বলেন,মূল হোতা স্কুল হায়দার,তার স্ত্রী পুষ্প,তারা দুজনই স্কুল মাস্টার, সরকারি চাকরি ও টাকার দাপটে সন্ত্রাসী ভাড়া করে নির্মম হামলা চালায় তার ভাবি মমতাও এগুলোর সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। স্থানীয় ও উপজেলা প্রশাসন,বিজ্ঞ বিচারক ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট এর সুবিচার চাই।আমরা অনিরাপদ ও জীবন নাশের শংকায় আছি।এখনো প্রাণ নাশের হুমকি দিয়েই যাচ্ছে।

তবে ঘটনা অস্বীকার করে তাজুল ইসলাম হায়দার বলেন,আমার নেতৃত্বে মারামারি হয় নি।আমি দুই পক্ষের মধ্যস্থতাকারী আমার চাচাতো ভাইয়ের সাথে ওদের জমি নিয়ে বিরোধ।ওরা হালকা ব্যথা পেয়েছে শুধু।

এবিষয়ে কটিয়াদী থানার ওসি শাহাদাত হোসেন বলেন,আমরা ঘটনা সম্পর্কে অবগত হয়েছি।তদন্তের ভিত্তিতে কাজ করবো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোস্তফা কামাল বলেন,আমি ঘটনাটি সম্পর্কে জেনেছি।ঘটনার সত্যতা যাচাই করে জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।প্রয়োজনে আমি কথা বলবো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

তিন জেলার মানুষ বিনামূল্যে পাবে চক্ষু চিকিৎসা

জবি প্রতিনিধি: পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও ও মানিকগঞ্জ এই তিন জেলায় অসহায়দের বিনামূল্যে চক্ষুসেবা দিতে চারটি চক্ষু …

error: Content is protected !!