কেরানীগঞ্জে মামা ভাগ্নের নিয়মিত ধর্ষনের শিকার ১৩ বছরের মামাতো বোন

ঢাকার কেরানীগঞ্জে  ১৩ বছরের এক মেয়েকে গোপনে নিয়মিত ধর্ষন করতো আপন মামা ও খালাতো ভাই। এ ঘটনায় মামা ও খালাতো ভাই কে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা কেরানীগঞ্জ উপজেলার শুভাঢ্যা ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া আদর্শনগর এলাকার লাট মিয়ার ছেলে রমজান (১৬) ও তার শ্যালক মালেক (৪০) ।

জানা যায় ধর্ষণের শিকার মেয়েটির মায়ের মৃত্যুর পর বাবা পরবর্তীতে বিয়ে করে অন্যত্র চলে যায় সে কারণে মেয়েটি তার খালার বাসায় থাকতেন। সহজ সরল মেয়েটিকে তার আপন মামা ও তার খালাতো ভাই ভয় দেখিয়ে প্রায়ই তার সাথে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতেন এমত অবস্থায় মেয়েটি ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি এলাকাবাসীর নজরে আসে।

পরে এলাকার কয়েকজন মহিলা মেয়েটিকে পরীক্ষার জন্য একটি গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলে চিকিৎসক বলেন মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসীর মনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে এলাকার পঞ্চায়েত কমিটির সদস্যরা সালিশির আয়োজন করে। সালিশে কোনো সিদ্ধান্ত না আসতে পারায় ৯৯৯ ফোন করেলে পুলিশ এসে ভিকটিম আরবি, ধর্ষক রমজান ও মালিককে থানায় নিয়ে যায়।

ধর্ষক রমজানের বাবা লাট মিয়ার সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমার ছেলে এই কাজ করেছে আমার কাছে বলেছে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই মেয়ে কি আমার ছেলের বউ করব কিন্তু ওর মামার ব্যাপারে আমি কিছু বলতে পারব না।

আদর্শনগর পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক জুলহাস বলেন রমজান ও তার মামা মালেক আমাদের কাছে ঘটনার বিষয়ে স্বীকার করেছেন বিষয়টি জটিল হওয়ায় আমরা ৯৯৯ নাইনে ফোন দিয়ে তাদেরকে আইনের হাতে তুলে দেই। তবে এলাকাবাসীর দাবি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিচার হোক।

এ বিষয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আবুল কালাম আজাদের সাথে কথা হলে তিনি বলেন এ ঘটনায় আসামী আটক করা হয়েছে এবং ধর্ষন মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

নরসিংদীতে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ

হৃদয় এস সরকার,নরসিংদী: নরসিংদীর মাধবদীতে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফৌজিয়ার নামে এক গাইনি ডাক্তারের ভুল চিকিৎসা …

error: Content is protected !!