কেরানীগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ ; হাসপাতাল ভাংচুর

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় শেফালী বেগম (৫০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে । এ ঘটনায় গতকাল সোমবার রাত ৮ টার দিকে কেরানীগঞ্জের মডেল থানাধীন শহীদ নগদর এলাকায় অবস্থিত আল বারাকা মডেল হাসপাতাল ভাংচুর করেছে নিহতের স্বজনেরা।

নিহতের মেয়ে পিংকি বলেন, আমার মায়ের হাতে টিউমার হয়েছিলো। অপারেশনের জন্য গত শনিবার আল বারকা মডেল হাসপাতালে ভর্তি করি। এখানে অপারেশনের পর রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে হাসপাতাল কতৃপক্ষ আমাদের না জানিয়ে এম্বুলেন্সে করে রোগীকে ঢাকার মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে গত রোববার আমার মা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। পরে জানতে পারি অজ্ঞান করার ভুল ওষুধ দেওয়ায় আমার মা মারা গেছে। আমার সুস্থ মাকে তারা চিকিৎসার নামে হত্যা করলো। আমরা এ হত্যা কান্ডের বিচার চাই।

স্থানীয় বাসিন্দা আক্তারুজ্জামান জানান, এ হাসপাতালটি এর আগেও বেশ কয়েকবার ম্যাজিস্ট্রেট সিলগালা করেছিলো। টাকার জোড়ে হাসপাতালের মালিক সোলায়মান জামান পুনরায় হাসপাতাল চালু করে চিকিৎসার নামে হাসপাতালটিকে মানুষ মারার কারখানা বানিয়েছে। এলাকাবাসী হিসাবে আমরা চাই এ হাসপাতালটি চিরতরে বন্ধ করে দেয়া হোক।

হাসপাতালের মালিক ও রোহিতপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সোলায়মান জামান বলেন, রোগী মারা গেছে মিটফোর্ড সরকারি হাসপাতালে, অথচ রোগীর লোকজন আমার হাসপাতাল ভাংচুর করেছে। ঘটনাটি সম্পূর্ন রূপে রাজনৈতিক ভাবে উদ্দেশ্য প্রনোদিত। আমার প্রতিপক্ষ আমার বিরুদ্ধে উসকানি দিয়ে এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। আমি এ ঘটনায় মামলা দায়ের করবো।

কেরানীগঞ্জের মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী রমজানুল হক বলেন, ভাংচুরের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছি। পরিস্থিতি আপতত স্বাভাবিক রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।#

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

অগ্নি নির্বাপন

কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লীর অধিকাংশ দোকানেই নেই কোন অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা !

ঢাকার কেরানীগঞ্জের কালিগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লী অগ্নিকান্ডের জন্য অত্যন্ত ঝুকিপূর্ন একটি এলাকা। এখানে রয়েছে প্রায় ৮ …

error: Content is protected !!