আনোয়ারায় লকডাউন বাস্তবায়নে জনগণের সহযোগিতা চান ইউএনও

এম.এম.জাহিদ হাসান হৃদয় (আনোয়ারা,চট্টগ্রাম): করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সারাদেশের মতো চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায়ও চলছে লকডাউনের প্রথম দিন। লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে রয়েছে উপজেলা প্রশাসন,সেনাবাহিনী,পুলিশ ও আনসার সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া সাতদিনের সরকারি এই কঠোর ‘লকডাউন’ এর প্রথম দিনের শুরু থেকেই প্রশাসন পক্ষ থেকে উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে ও সড়কে ব্যারিকেড দেয়া হয়। লকডাউন চলাকালীন জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করছেন উপজেলা প্রশাসন।
সকাল থেকেই উপজেলা প্রশাসনের দুইটি টিম লগডাউন বাস্তবায়নে মাঠে দেখা যায়।

একদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জুবায়ের আহমেদ নেতৃত্বে পুলিশ প্রশাসনের একটি টিম জয়কালী বাজার, মালঘর বাজার ও ছাত্তার হাট এলাকায় টহল দিতে দেখা যায়। অপর দিকে বটতলী, সেন্টার, চাতরী এলাকায় টহল দেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) তানভীর হাসান চৌধুরী। তাকে সার্বিক সহযোগিতা করেন ক্যাপ্টেন শুয়াইবের নেতৃত্বে সেনা বাহিনীর একটি টিম।

সরেজমিনে দেখা যায়, কঠোর এ বিধিনিষেধের প্রথম দিনের সকাল থেকে গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে নিরাপত্তা চৌকি বসিয়েছে থানা প্রশাসন। জরুরি সেবা ব্যতীত সব দোকানপাট, মার্কেট ও শপিংমল বন্ধ রয়েছে। আনোয়ারার সঙ্গে বাঁশখালী ও চন্দনাইশসহ বিভিন্ন সড়ক যোগাযোগের পয়েন্টগুলিতে পুলিশ চেকপোস্ট বসিয়েছে। এছাড়াও রয়েছে উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সবার প্রতি আহ্বান জানানো হচ্ছে। ভোর থেকেই উপজেলার বিভিন্ন সড়কে তৎপর রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

লকডাউনের প্রথম দিনের সার্বিক বিষয় জানতে চাইলে, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর হাসান চৌধুরী বলেন, সম্প্রতি করোনা সংক্রমক বেড়ে যাওয়ায় স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিশ্চিত করতে আজকে থেকে লকডাউন চলছে। মানুষ মোটামুটি আইন মেনে চলছে। লকডাউন বাস্তবায়ন করতে আমরা কঠোর অবস্থানে মাঠে রয়েছি। প্রয়োজনে কাল থেকে আরো কঠোর হবো আমরা।

আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জোবায়ের আহমেদ জানান, সংক্রমণ আবার বেড়ে যাওয়াতে সরকার আবার কঠোর লগডাউন ঘোষণা করেছেন ১ সপ্তাহের জন্য। আমরা চেষ্টা করেছি এই লগডাউন বাস্তবায়ন করার। আজকে আমরা কয়েকটা টিমে ভাগ হয়ে সমগ্র আনোয়ারাতে আমরা টহল দিয়েছি। মানুষকে বুঝানোর চেষ্টা করেছি তারা যেন ঘরে থাকে। আমরা দেখছি মানুষ আমাদের সহযোগিতা করছে। আমাদের সাথে আনোয়ারা থানা পুলিশ এবং সেনাবাহিনী রয়েছেন। আমরা মানুষের সহযোগিতা চাই কারণ আমার মনে হয় লগডাউন যদি বাস্তবায়ন করতে পারি তাহলে সংক্রমণ কমবে।

উল্লেখ্য যে, বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই কঠোর লগডাউন বুধবার (৭জুলাই) মধ্যরাত পর্যন্ত চলমান থাকবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

যশোরে চাঞ্চল্যকর হত্যার রহস্য উদঘাটন, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৬

হৃদয় এস সরকার:  যশোর শহরের চাঞ্চল্যকর শাওন ওরফে টুনি শাওন হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। …

error: Content is protected !!