আনোয়ারায় গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে খুন

 

এম.এম.জাহিদ হাসান হৃদয়,আনোয়ারা,চট্টগ্রামঃচট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় জায়গা জমির বিরোধ নিয়ে গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে রতন দাশ (৫৫) নামের এক মুদির দোকানীকে খুন করেছে প্রতিপক্ষ।

শনিবার (২৬ জুন) সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের খিলপাড়া গ্রামে রমেশ দাশের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, নিহত রতন দাশ ৭নং সদর ইউনিয়নের ১নং খিলপাড়া ওয়ার্ডের রমেশ দাশের বাড়ীর মৃত নির্মল দাশের ছেলে। নিহত রতন দাশের ৩ কন্যা সন্তান রয়েছে।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে রতন দাশের সাথে স্থানীয় মিন্টু ভৌমিক ও টিটু ভৌমিকের মধ্যে জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। কয়েক মাস আগে রতন দাশ তার দখলীয় জায়গা থেকে গাছ কাটলে প্রতিপক্ষ বাধা দেয়। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘটনার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত কাটা গাছ ঘটনাস্থলে রেখে দিতে বলে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আজ শনিবার মিন্টু ভৌমিক ও তার পরিবারের সদস্যরা পরিকল্পিতভাবে রতন দাশের পরিবারের উপর হামলা করার উদ্দেশ্যে কাটা গাছ টা নিয়ে যেতে চাইলে রতন দাশ বাধা দেন। এসময় ধারালো দা দিয়ে রতন দাশের শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপ এবং লাঠি দিয়ে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে মিন্টু ভৌমিক,টিটু ভৌমিক এবং নিলয় কিশোর ভৌমিক। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রতন দাশকে উদ্ধার করে আনোয়ারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এই বিষয়ে নিহত রতন দাশের স্ত্রী অশ্রু দাশ জানান,পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মিন্টু ভৌমিক,টিটু ভৌমিক, এবং টিটু ভৌমিকের স্ত্রী কণিকা ভৌমিক ও তার ছেলে নিলয় কিশোর ভৌমিক আমাদের জায়গার কাটা গাছ নিয়ে যাওয়ার বাহানায় আমি এবং আমার স্বামী ও মেয়ের উপর হামলা করে। তারা দা এবং লাটি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে আমার স্বামী কে হত্যা করে। আমি আমার স্বামীর হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এই ঘটনায় আনোয়ারা থানায় নিহতের স্ত্রী অশ্রু দাশ বাদী হয়ে চার জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
আসামীরা হলেন, টিটু ভৌমিক (৫০), মিন্টু ভৌমিক (৪৭), নিলয় কিশোর ভৌমিক (১৯), কনিকা ভৌমিক (৪৫)।

ঘটনার তদন্তের বিষয়ে আনোয়ারা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সৈয়দ ওমর বলেন, জায়গা জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সকালে আনোয়ারা সদরের খিলপাড়া গ্রামে রতন দাশ নামে এক ব্যবসায়ীকে ধারালো দা ও লাঠি দিয়ে আঘাত করলে তিনি গুরুতর জখম হয় । তাকে আনোয়ারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। পরবর্তীতে নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ঘটনার ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এবং অভিযুক্ত টিটু ভৌমিকের ছেলে নীলয় কিশোর ভৌমিক ও স্ত্রী কণিকা ভৌমিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

যশোরে চাঞ্চল্যকর হত্যার রহস্য উদঘাটন, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৬

হৃদয় এস সরকার:  যশোর শহরের চাঞ্চল্যকর শাওন ওরফে টুনি শাওন হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। …

error: Content is protected !!