কারাগারে আত্মহত্যা করলেন ম্যাক্যাফি অ্যান্টিভাইরাসের নির্মাতা

 

আত্মহত্যা করেছেন মার্কিন প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ও ম্যাক্যাফি অ্যান্টিভাইরাসের নির্মাতা জন ম্যাক্যাফি। কর ফাঁকির মামলায় স্পেনের আদালত তাকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেয়ার অনুমোদন দেয়ার পরই তিনি আত্মহত্যা করেন।

বুধবার (২৩ জুন) স্পেনের একটি কারাগারে জন ম্যাক্যাফি আত্মহত্যা করেন বলে খবর প্রকাশ করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

 

ম্যাকাফির আইনজীবী জাভিয়ের ভিল্লালবা জানান, অ্যান্টিভাইরাসের সফটওয়্যার নির্মাতা জন ম্যাক্যাফি ৯ মাস ধরে কারাগারে ছিলেন। এতে তিনি হতাশার দিকে চলে যান। যা তাকে ফাঁসির দিকে নিয়ে যায়।

গত মাসে স্পেনের আদালতে শুনানির সময় ৭৫ বছর বয়সী ম্যাক্যাফি আদালতকে বলেছিলেন, ‘তিনি যদি যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে দোষী প্রমাণিত হন, তাহলে তাকে বাকি জীবন কারাগারেই থাকতে হবে। আর যুক্তরাষ্ট্রে অবিচার হচ্ছে। আমি আশা করছি স্পেনের আদালত এটা দেখবেন।’

 

গত বছরের অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রের টেনিসি অঙ্গরাজ্যে ম্যাক্যাফির বিরুদ্ধে কর ফাঁকির মামলা হয়। এছাড়া নিউইয়র্কে তার বিরুদ্ধে ক্রিপ্টোকরেন্সি সংক্রান্ত প্রতারণার একটি অভিযোগ রয়েছে।

স্পেনের পুলিশ সূত্র জানায়, গত বছরের ৩ অক্টোবর প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের এই প্রতিষ্ঠাতা ব্রিটিশ পাসপোর্ট নিয়ে ইস্তাম্বুলে যাচ্ছিলেন। তখন তাকে বার্সেলোনা বিমানবন্দরে গ্রেফতার করা হয়। এরপর থেকে তার বিচার চলছিল স্পেনের আদালতে।

 

এর আগে ২০১৯ সালে কর ফাঁকির কথা স্বীকার করে ম্যাক্যাফি বলেছিলেন, আদর্শিক কারণে আট বছর ধরে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে কর দেন না।

রয়টার্স জানায়, ম্যাকাফি কয়েক বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে পালিয়েছিলেন। সেই থেকে একটি বিলাসবহুল তরীতেই জীবন-যাপন করছিলেন তিনি। স্ত্রী জেনিস ম্যাক্যাফি, নিরাপত্তা প্রহরী ও তার চারটি কুকুর নিয়ে থাকতেন।

উল্লেখ্য, ১৯৮০-এর দশকে নিজ নামে ‘ম্যাক্যাফি’ প্রতিষ্ঠা করেন এই প্রযুক্তিবিদ। এরপর ২০১১ সালে আরেক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইনটেলের কাছে ম্যাক্যাফি বিক্রি করেন তিনি। এরপর থেকে আর কোনো ব্যবসায় জড়াননি তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবক গ্রুপের সমন্বয় কমিটি গঠিত

কেরানীগঞ্জের সামাজিক উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করা অন্যতম সামাজিক সংগঠন কেরানীগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবক গ্রুপের কাজে আরও …

error: Content is protected !!