বেহাল দশা সড়কের
বেহাল দশা সড়কের

বার বার প্রতিশ্রুতিতেও কমেনি দুভোর্গ ; বেহাল দশা সড়কের

কেরানীগঞ্জের মনু ব্যাপারীর ঢাল ও বোরহানীবাগ এলাকার সড়কের বেহাল দশা

বর্তমান সরকার দেশের সর্বাত্রে উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে দিচ্ছে। যা এখনো অব্যাহত রয়েছে, সারা দেশের ন্যায় কেরানীগঞ্জ উপজেলায় এর ধারা বাহিকতা থাকলেও জিনজিরা ইউনিয়নের মনু বেপারীর ঢাল হতে বোরহানী বাগ কবরস্থান হয়ে বোরহানীবাগ কালভার্ট থেকে ভাগনা স্কুল এবং বোরহানীববাগ টাইলস মসজিদ হতে মুক্তিরবাগ পর্যন্ত ব্যস্ততম এই সড়কটির চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন।

প্রায় দু’তিন বছর যাবত এই সড়ক দুটি খানাখন্দে ভরা। একটু বৃষ্টি হলেই খালে পরিনত হয়। এখানে রয়েছে কয়েকটি গ্রাম ও প্রায় লক্ষাধিক লোকের বসবাস। কেরানীগঞ্জ উপজেলা দুটি সংসদীয় আসনে বিভক্ত। আর এ আসন দুটিতে রয়েছে একজন এমপি আরেকজন প্রতিমন্ত্রী। উক্ত জায়গা দুটি দুটি আসনের শেষ বর্ডার হওয়ায় কোন এমপি-মন্ত্রীর চোখে পড়ে না বলে এলাকাবাসির অভিযোগ। অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় নেতাদের প্রতিও। এলাকাবাসি জানান, স্থানীয় নেতারা প্রতিদিন এখান দিয়ে পঁচা পানি ও নর্দমা দিয়ে হেটে যাবেন কিন্তু সড়কটি মেরামত করাবেন তাতে তাদের কোন সুদৃষ্টি নাই। তারা আছে তাদের আখের ঘোছানের জন্য।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় পুরো সড়কটি পানিতে তলিয়ে গেছে, বর্ষা মৌসুমে সড়কে কম বেশি কাঁদা-পানি দেখা যায়। তবে এই সড়কটির চিত্রটি সম্পূর্ন ভিন্ন। সারা বছরই ময়লা আবর্জনার পানি জমে থাকে। এই সড়কটি দিয়েই প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষের যাতায়াত।


এই সড়কে নিয়মিত চলাচলরত অটোরিকশার চালক মোঃ কালাম মিয়া বলেন, প্রতিদিন প্রায় কয়েক শত গাড়ি ও হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে এ সড়কটি দিয়ে, বর্তমানে সড়কটি প্রায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। খানাখন্দে গাড়ি উল্টে পরা সহ ব্যাপক ক্ষতি হয় । প্রতিদিন গাড়ি চালিয়ে যা উপার্জন করি তার বড় একটি অংশ গাড়ি মেরামত করার কাজে ব্যয় করতে হয় আমাদের। প্রায় ২-৩ বছর ধরে সড়কটির এই দুরবস্থা। এই সড়কটি যেন দেখর কেউ নেই।

এ বিষয়ে আশেপাশের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, এই সড়ক টি একটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হওয়া সত্ত্বেও এমন হাল হওয়ার কারনে রিক্সা, মোটর সাইকেল আরোহী ও সাধারন পথচারীসহ সবারই চলতে কষ্ট হয়। প্রতিদিন ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটে যায় তবুও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বারবার প্রতিশ্রুত দিয়ে যাচ্ছে বারবাল। পনপ্রতিনিধিদেও এই প্রতিশ্রুতি দিলেও কমেনি দুর্ভোগ। স্থায়ীভাবে সংস্কার করার কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না, সড়কটির এ অবস্থা দেখেও মনে হয় না দেখার বান করছে সবাই।

অথচ নির্বাচন এলেই বিভিন্ন প্রতিশ্রুত দিয়ে যায় । তাদের এমন উদাসীনতার কারনে আমরা জনসাধরন খুব কষ্ট আছি। এ দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে এই পথে আমাদের চলাফেরা করতে হয় প্রতিনিয়ত। তারা আরো বলেন, সড়কে জমে থাকা ময়লা পানির দুর্গন্ধের কারনে টেকা যায় না। এই ময়লা পানির কারনে আমাদের ছোট ছোট স্কুল-কলেজগামী বাচ্চাদের অনেক সমস্যা হয়। যদিও বর্তমানে স্কুল-কলেজ বন্ধ রয়েছে তাই রক্ষা। অনেক দিন ধরে এই পানিগুলো জমে থাকার কারণে প্রতিনিয়ত মশা ও বিভিন্ন পোঁকার উপদ্রব বেড়ে চলছে। প্রতিদিন বাসায় আসা যাওয়ার সময় এই দুর্গন্ধযুক্ত ময়লা পানি পারি দিয়ে আসতে হয় ফলে নানান ধরনের চর্ম রোগ বাসা বাধে শরীরে। এমতবস্থায় সড়কটি সংস্কার করে ব্যবসায়ী, শিক্ষার্থীসহ সাধারন মানুষকে দুর্ভোগের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন তারা।


এ বিষয়ে কালিন্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মোঃ মোজাম্মেল হোসেন বলেন এই সড়কটি আমার ইউনিয়নের খুব গুরুত্বপূর্ণ ও ব্যস্ততম একটি সড়ক। বিগত ৩/৪ মাস আগে কাজ শুরু করার কথা ছিল কিন্তু করোনার কারনে তা আর সম্ভব হয়নি, সড়কটির ব্যাপারে আমাদের উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে বেশ কয়েক বার কথা বলেছি, আশা রাখি দেশের পরিবেশ স্বাভাবিক হওয়ার সাথে সাথেই খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে সুন্দর একটি সড়ক হবে এটি।

অন্যদিকে জিনজিরা ইউনিয়ন পারিষদের চেয়ারম্যান সাকুর হোসেন সাকু বলেন, করোনা ভাইরাসের কারনে সড়কটির কাজ শুরু করা সম্ভব হয়নি, উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব শাহীন আহমেদ ও উপজেলা প্রকৌশলী জনাব শাহজাহান মিয়ার সাথে এই সড়কটির বিষয় কথা হয়েছে তারা জানিয়েছেন ইতিমধ্যে সড়কটিতে সুয়ারেজ লাইন বসানো হয়েছে বাকী কাজ খুব দ্রুত শেষ করা হবে।

এ বিষয়ে কথা হয় উপজেলা প্রকৌশলী জনাব শাজাহান আলীর মুঠোফোনে সাথে খতঅ হলে তিনি জানান, এ সপ্তাহের মধ্যে বাকী কাজ ধরা হবে। আশা করছি আগামী এক মাসের মধ্যে সড়কটি নতুন আঙ্গিকে একটি পূনাঙ্গ সড়কে পরিনত হলে এলাকাবাসির কস্ট লাঘব হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ বলেন, এই সড়কটিতে সুয়ারেজ লাইনের অবস্থা ভাল ছিল না। এখানে স্থায়ীভাবে ভাল একটি সুয়ারেজ লাইন বসানো হয়েছে। বাকী কাজ অতি শিগ্রই সম্পন্ন করা হবে। আর এ কাজটি করা হলে এই সড়কটি হবে কেরানীগঞ্জে সবচেয়ে ভাল একটি সড়ক। #

আলতাফ হোসেন মিন্টু

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

যশোরে ভগ্নিপতির হাতে শ্যালক খুন, ভগ্নিপতি গ্রেফতার

হৃদয় এস সরকার: যশোরের চৌগাছায় আপন ভগ্নিপতির হাতে শ্যালক রাতুল খুনের ঘটনায় ভগ্নিপতি শিশির আহম্মেদ …

error: Content is protected !!