শনিআখড়ায় হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত কিশোর গ্যাংয়ের ৬ সদস্যকে কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার

ঢাকার কদমতলী থানার শনিআখঁড়া এলাকায় বর্ণমালা স্কুলের গলিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে খুন হয় ইয়াসিন আরাফাত সায়েম নামে (১৮) বছরের এক কিশোর। সায়েমকে হত্যা করে পালিয়ে যাওয়ার সময় কিশোর গ্যাংয়ের ৬ সদস্যকে আটক করে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। পরে আটককৃতদের কদমতলী থানায় হস্তান্তর করে দেয়া হয়।

দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে থানা পুলিশের একটি দল টহল দিচ্ছিল। এসময় ৬ জন কিশোর উদ্দেশ্যহীন ভাবে ঘোরাফেরা করছিল। তাদের শরীরে রক্তমাখা ছিল। এতে পুলিশের সন্দেহ হলে ওই ৬ কিশোরকে আটক করে তারা। প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদে তারা পুলিশের কাছে জানান, ইয়াসিন আরাফাত সায়েম নামে এক কিশোরের সাথে তাদের মারামারি হয়। পরে সায়েম মারা যায় শুনে কিশোররা মাওয়া হয়ে শরিয়তপুরের দিকে পালিয়ে যাচ্ছিলেন।

এ ব্যাপারে কদমতলী থানায় খবর নিয়ে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তাদেরকে আটক করা হয়। আটকৃতরা হলো- তানজিল শেখ, মোঃ শাহরিয়ার ইসলাম শুভ, মোঃ শাহরিয়ার নাফিজ জয়, মোঃ হাবিবুর রহমান ,মোঃ বাবুল হোসেন টুটুল ও মোঃ মাহমুদ।
নিহত ইয়াসিন আরাফাত সায়েম কদমতলী থানার আল ইসলামিয়া মসজিদ এর পাশে বাপ্পীদের বাড়ীর ভাড়াটিয়া ও ১২নং কুতুবপুর গ্রামের, বেগমগঞ্জ থানার নোয়াখালী জেলার আব্দুল আলীর ছেলে।

এ ব্যাপারে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ বলেন, কদমতলী থানা এলাকায় এক কিশোর খুনের ঘটনার সাথে জড়িত ৬ কিশোরগ্যাং সদস্যকে আটক করেছে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। আটককৃতদের শুক্রবারে কদমতলী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। #

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

বুড়িগঙ্গায় গোসল করতে নেমে শিশু নিখোঁজ ; একদিন পর লাশ উদ্ধর

বুড়িগঙ্গা নদীতে সুমন মিয়া নামের (০৯) বছরের এক শিশু গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হয়। পরদিন …

error: Content is protected !!