বইমেলা

বইমেলা তে ইয়াছিন আরাফাতের “মনে মনে হেমন্ত বনে”

লেখালেখি আরাফাত বিন আবি তাহির নামে, পেশায় সহকারী জজ, নেশায় কবি এই মানুষটির কর্মস্থল চট্টগ্রামে। মূল নাম ইয়াছিন আরাফাত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর,ল’তে পড়ার কারণে আইন পেশায় থেকে যাওয়ার ইচ্ছা থেকেই প্রথমে আইনজীবী এর পর জাজ হলেন। পড়ালেখার পাশাপাশি সাহিত্যের প্রতি দুর্বলতা থাকায় চর্চা থেমে থাকে নি। জানালেন, “আমার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘মনে মনে হেমন্ত বনে’ সাহিত্যের প্রতি আমার ভালবাসার প্রথম নিদর্শন।

ভালবাসা থেকেই এসাহিত্য, এ কবিতা।” কবিতা আসে হঠাৎ করে। আসে মন থেকে, আসে আত্মা থেকে। বাজিমাৎ করা কবির উদ্দেশ্য নয়। বাহবা পাবেন এমন আশা করে কবিতা লেখেন নি।হাসোজ্জ্যল এই বিচারক জানালেন,”দুই অক্ষর বের হলে আশান্বিত হইলিখতে ভাল লাগে। ভাল লাগা থেকে যে সাহিত্য সেটা ভাল হওয়ার কথা। ভাল নাকি মন্দ সেটা পাঠক নির্ধারণ করবেন। তবে আমি একটু বাড়িয়ে এসে বলতে দিলে বলব, কবিতা শ্রেষ্ঠ বা ভাল-মন্দ হওয়ার বিষয় নয়। স্থান কাল পাত্র ভেদে একেক কবিতা জনপ্রিয় হয়ে উঠে। সেটা স্থান এবং সময়ের কারিশমা আমি বিচারক। কিন্তু কবিতার বিচারক নই, কবিতার বিচারক আমার পাঠকবৃন্দ। সেটা পাঠকই নির্ধারণ করবেন।

” কবি আরাফাত বিন আবি তাহিরের এটি প্রথম কাব্যগ্রন্থ। এখানে মনের আবেগকে দমন করেননি আবার ঠুনকো জনপ্রিয়তা ও মোহের ফাঁদেও পা দেননি কখনোই। কবিতাগুলোর মূলভাব জানাতে গিয়ে বললেন, ” আমি কবিতায় পারিপার্শ্বিকতাকে পাত্তা দিয়েছি। প্রকৃতি, মানুষ আর অনির্বচনীয়তাকে একত্রে গেঁথে দিয়েছি। সমালোচকরা কি বলবেন সেটা জানিনা তবে আমি বলব এটা আমার স্বতন্ত্র ধারার একটি বহিঃপ্রকাশ। ভয় নিয়ে কবিতা হয় না, তবে আমি বিদ্রোহ করেছি নিজের সাথে। আত্মার অপারগতাকে অস্বীকার করে পৃথিবীকে ভালবেসেছি

পাঠকরা ‘মনে মনে হেমন্ত বনে’ কাব্যগ্রন্থের কবিতাগুলো পড়ে আশাকরি তৃপ্ত হবেন। যা বলতে চেয়েছি কবিতায় বলেছি। আলোচনায় থাকতে চেয়েছি বলে কবিতা করেছি তা নয়, এটা আমার একান্ত ভালবাসা। কবিতা লিখি অনেক আগে থেকে। মাঝখানে বিরতি নিয়েছি। আবার অনলাইনে লেখা শুরু করি। আস্তে আস্তে পান্ডুলিপি গুছিয়ে নিয়েছি। তৈরী করেছি প্রথম প্রয়াসের গ্রন্থ-রূপ। কবিদের স্বতন্ত্র অহংকারকে অস্বীকার বা গোপন না করে বলব, নতুন কবি হলেও আমার হিসাবে ভুল নেই। কবিতায় ভুল করিনি। তারপরও সুযোগ রয়ে গেলো। কোন সমালোচক বা পাঠকের চোখে ভুল-ত্রুটি দৃশ্যমান হলে জানাবেন। পরবর্তী সংস্করণে শুধরে নেব।” বইটি দেশ পাবলিকেশন্স, মেলায় স্টল নং ৪৫২ ও ৪৫৩ য়ে পাওয়া যাচ্ছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

দুর্গাপুর উপজেলা আ.লীগের উদ্যোগে কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত

পলাশ সাহা, নেত্রকোনা (দুর্গাপুর) প্রতিনিধিঃ আওয়ামীলীগের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপন উপলক্ষে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে নানা আয়োজনে …

21 comments

  1. wonderful post, very informative. I ponder why the opposite experts of this sector don’t notice this. You must continue your writing. I’m confident, you have a huge readers’ base already!|

  2. Thank you, I have recently been looking for information about this subject for a long time and yours is the greatest I’ve discovered till now. However, what in regards to the conclusion? Are you sure in regards to the supply?|

  3. Hi, all is going well here and ofcourse every one is sharing data, that’s in fact fine, keep up writing.|

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!