মাধবপুরে শসার বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

শেখ জাহান রনি, মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় এবার শসার বাম্পার ফলন হয়েছে। একইসঙ্গে বেশি দামে বিক্রি করতে পেরে করোনা পরিস্থিতিতেও খুশি কৃষক। এবার তারা শসা চাষ করে লাভের মুখ দেখেছেন বলে জানান।

এ বছর মাধবপুর উপজেলার প্রায় সব ইউনিয়নে ধর্মঘর, চৌমুহনী, বহরা, আদাঐর, আন্দিউড়া, বুল্লা, জগদীশপুর , শাহজাহানপুর, বাঘাসুরার সবজি খেতে প্রচুর পরিমাণে শসা চাষ হয়েছে। প্রতিদিন সিএনজি, পিকআপ ট্রাক শসা ও অন্যান্য সবজি মাধবপুর থেকে দেশের অন্যান্য শহরে যাচ্ছে।

কৃষকরা বাসার জানান, গাছ লাগানোর ৩০ থেকে ৩৫ দিনের মধ্যে শসা গাছে শসা ধরে। এর পরে ভালো যত্ন এবং প্রয়োজনীয় সারের ব্যবহার করে ৩০ থেকে ৪০ দিন শসার ভালো ফলন পাওয়া যায়। প্রতিদিন এক একর জমি থেকে প্রায় ৭ থেকে ৮ মণ শসা বিক্রি করা সম্ভব। তিনি আরও বলেন, ‘আমি ২ বিঘা জমিতে শসা চাষ করেছি। গত ৮ দিন ধরে শসা বিক্রি করছি।এবার ফলন বেশি হয়েছে। আর প্রতি কেজি ৩০-৪০ টাকা পাইকারি দরে বিক্রি করছি।

 

শসা চাষি মনির হোসেন, আব্দুর রহমান এবং আরও কয়েকজন জানান, অনুকূল আবহাওয়ার কারণে এবার শসার ফলন খুব ভালো হয়েছে। কৃষি বিভাগও আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। আমরা পাইকারদের কাছে প্রতি কেজি ৩০-৪০ টাকায় বিক্রি করছি। আমরা যদি এমন দাম পাই তবে এবার বেশ লাভ হবে।

মাধবপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অফিসার আল মামুন বলেন, মাধবপুর উপজেলায় সবজি আবাদের উপর অতিরিক্ত জোর দেওয়া হয়েছে। সরকার সময়মত বীজ, সার ও ঋণ প্রবাহ সচল রেখেছেন।

যার ফলে এবছর বিভিন্ন সবজি বিশেষ করে শসার বাম্পার ফলন হয়েছে। আমরাও কৃষকদের সব ধরণের কারিগরি সহযোগিতা ও বাজারজাত করণের পরামর্শ দিয়েছি।যাতে কৃষকরা লাভবান হতে পারে সেজন্য আমাদের সব ধরণের চেষ্টা রয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

লালপুরে সাংবাদিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

নাটোরের লালপুরে দিনব্যাপী সাংবাদিকতায় বুনিয়াদি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) উপজেলার গ্রীন ভ্যালি পার্কে …

error: Content is protected !!