জনবল সংকটে পাঁচবিবি উপজেলা ভূমি অফিস

জামিরুল ইসলাম জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধি: দীর্ঘদিন ধরে জনবল সংকটে চলছে জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলা সহকারি ভুমি কার্যালয়ের কার্যক্রম। কয়েক বছর যাবৎ নেই এ অফিসের সার্ভেয়ার, কানুনগো, সার্টিফিকেট পেশকার ও ক্রেডিট চেকিং সহকারি পদের জনবল। অফিসের অন্যরা সবাই মিলে শুন্য পদের লোকের কাজগুলো করতে পারলেও পারেনা সার্ভেয়ার ও কানুনগোর কাজ। জেলা অফিস থেকে বুধবার ও বৃহস্পতিবার সার্ভেয়ার ও কানুনগো আসলেও অফিসের পূরো সপ্তাহের জমানো কাজ করতে তাদের হিমসিম খেতে হয়। এছাড়া ধরঞ্জী ও মোহাম্মদপুর দু’টি ইউনিয়নের ভুমি সহকারি কর্মকর্তার পদও রয়েছে শুন্য। জনবল সংকটের কারনে উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরবাসীদের ভুমি সংক্রান্ত সেবা পেতে কিছুটা হলেও বিড়ম্বনায় পরতে হচ্ছে। নামজারি, জমা খারিজ ও বিভিন্ন কাজের জন্য অফিসে সেবা নিতে আসা অনেকেই মনে করেন বাঁকী পদের লোকগুলো থাকলে অল্প সময়ের মধ্যেই আমাদের কাজগুলো হয়ে যেত।

জরুরী চিকিৎসা, ছেলেমেয়ের বিয়ে বা অন্য কাজে টাকার প্রয়োজনে অনেকেই তাদের জমি বিক্রয় করার সময় এ কারনে একটু হলেও সময় লাগছে। উপজেলার পানিয়াল গ্রামের আঃ মজিদ বলেন, মাঠের একটা জমি জরিপের সময় পিতার নাম ও দাগ নম্বর ভুল হয়েছে। সেটুকু সংশোধনের জন্য ভুমি অফিসে আবেদন করেছি সব কাজ হলেও শুধু সার্ভিয়ারের কাজ সম্পাদন না হওয়ায় কাগজ পেতে একটু দেরী হলো। উপজেলার সোনাপুর গ্রামের স্কুল শিক্ষক আওলাদ হোসেনও একই মন্তব্য করেন।

উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) এম এম আশিক রেজা বলেন, অফিসে কিছুটা জনবল সংকট আছে একারনে কাজের একটু বিলম্ব হতে পারে। এ অফিসে সেবা নিতে আসা কেউ যেন বিড়ম্বনার ও হয়রানীর স্বীকার না হয় আমি সহ অফিসের সবাই মিলে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি বলেও জানান তিঁনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ঝিকরগাছায় বাল্য বিবাহ বন্ধ  করলো উপজেলা প্রশাসন

আক্তার মাহমুদ, ঝিকরগাছা : যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ বন্ধ হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী …

error: Content is protected !!