নরসিংদীতে সাংবাদিক ও সেচ্ছাসেবক কর্মীদের উপর হাসপাতাল কতৃপক্ষের হামলা

হৃদয় এস সরকার,নরসিংদী: : নরসিংদী প্রাইম জেনারেল হাসপাতাল রক্তের ক্রস মেচিং পরিক্ষার জন্যে রোগীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকার নেয়ার বিষয়ে জানতে চাওয়ায় সাংবাদিক ও সেচ্ছাসেবক কর্মীদের উপর হামলার চালিয়ে এলোপাথারী পিটে রক্তাক্ত করেছে হাসপাতাল কতৃপক্ষ।

আহতরা হলেন, জে টিভি নিউজ সাংবাদিক মো.মিজান ও স্থানীয় খোঁজ খবর পত্রিকার সাংবাদিক ও ব্লাড ডুনার ক্লাবের সদস্য মারুফ মিয়া।সোমবার (১৫ মার্চ) মোসলেহ উদ্দিন ভূইয়া স্টেডিয়াম সংলগ্ন নরসিংদী প্রাইম জেনারেল হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।ঘটনার পর পুলিশ খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

জানাযায়, মনোয়ারা বেগম নামে একজন মুমুষ রোগীর জন্যে রক্তের প্রয়োজন। এজন্য রোগীর রক্তের প্রয়োজন। রক্তের জন্য ফোন আসে সেভ লাইফ ব্লাড ডুনার ক্লাবের সদস্য ও খোঁজ খবর পত্রিকার সাংবাদিক মারুফ মিয়ায় কাছে। এমন খবরে রক্ত দেয়ার জন্য নরসিংদী প্রাইম জেনারেল হাসপাতালে ছুটে আসেন মারুফ ও সাংবাদিক মিজান সহ সেচ্ছাসেবক কর্মীরা। এসময় রক্তের ক্রস মেচিং এর চার্জ ধরা হয় তিন হাজার তিন শত টাকা।

অতিরিক্ত চার্জের বিষয় নিয়ে সেচ্ছাসেবককর্মীদের সাথে হাসপাতাল কতৃপক্ষের কথাকাটাকাটি হয়। পরে তাদেরকে হাসপাতালের ৪ তলায় মালিকের নিকট যেতে বলা হয়। সেখানে যাওয়ার পর হাসপাতালের ডিরেক্টর মাকসুদ এর সাথে কথা বলার সময় পেছন থেকে সেভ লাইফ ব্লাড ডুনার ক্লাবের সদস্য ও সাংবাদিকদের উপর এলোপাথারী মারপিট শুরু করেন হাসপাতালের ডিরেক্টর নাসির ও তার কর্মচারীরা। এসময় হাসপাতাল ডিরেক্টর নাসির মোবাইল দিয়ে জে টিভি নিউজ সাংবাদিক মো.মিজানের চোখের নিচে আঘাত করে। এতে তার চোখের নিচে কেটে গিয়ে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়।

সিসি টিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করে দেখা যায়, হাসপাতালের ৪র্থ তলায় হাসপাতালের ডিরেক্টর মকসুদ এর সাথে কথা বলার সময় পেছন থেকে সেভ লাইফ ব্লাড ডুনার ক্লাবের সদস্য ও সাংবাদিকদের উপর এলোপাথারী মারপিট শুরু করে। পরে তাদের একটি রুমে নিয়ে বেধম প্রহার করে। সেখান থেকে তারা আত্মরক্ষায় দৌড়ে নিচে নেমে আসার চেষ্টা করে। কিন্তু হাসপাতাল কতৃপক্ষ লাঠি সোটা নিয়ে তাদের ধাওয়া দিয়ে মারতে মারতে নিচে নিয়ে আসে।

আহত সাংবাদিক মিজান বলেন, সংবাদ সংগ্রহের কাজে ইউএমসি জুট মিল এলাকায় ছিলাম। রক্তের জন্য মারুফের নিকট ফোন আসলে মানবিক দিক বিবেচনা করে আমিও সেখানে যাই। সেখানে যাওয়ার পর রক্তের ক্রস মেচিং করানো হয়। বিল বাবদ ৩ হাজার ৩শত টাকা বিল দেয়া হয়। তখন অতিরিক্ত বিলের বিষয়ে জানতে চাইলে হাসপাতাল কতৃপক্ষ আমাদের উপর চড়াও হয়। একপযার্য়ে তারা কৌশলে আমাদের ৪ তলায় নিয়ে গিয়ে মারপিট করে। তাদের হামলায় আমার চোখের নিচে কেটে গেছে। সেখানে দুইটি সেলাই দেয়া হয়েছে। আমি দোষীদের বিচার চাই।

এদিকে সকল অভিযোগ অস্বীকার করে হাসপাতালের ডিরেক্টর মাকসুদ বলেন,তারা দীর্ঘক্ষন যাবৎ হাসপাতালে এসে যামেলা করার চেষ্টা করছে। এক পর্যায়ে তারা আমাদের লোকজনের উপর হামলা করে। পরে হাসপাতালের লোকজন তাদের ধাওয়া দেয়।

সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক সাখাওয়াত বলেন,গন্ডগোলের খবর পেয়ে হাসপাতালে এসে দুই পক্ষের সাথে কথাবলি। কয়েকজন আহত হয়েছে। সিসি টিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। সাংবাদিকরা অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

মাধবপুরে বিপুল পরিমান ভারতীয় ফেনসিডিলসহ আটক ২

  মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় ১৪৭বোতল ফেনসিডিল সহ দুই মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে কাশিমনগর …

error: Content is protected !!