বসন্ত ও ভালোবাসা দিবেসকে সামনে রেখে ফুলের দাম বাড়ছে রংপুরে

এম হামিদুর রহমান লিমন, রংপুর প্রধানঃ ফেব্রুয়ারি ১৪ তারিখ বা পহেলা ফাল্গুন বিশ্ব ভালবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে ফুলের দাম বৃদ্ধি করেছেন ব্যাবসায়ী। একটি পোলাপ আর রজনীগন্ধা ফুলের স্টিক বা লাটির সাধারণত প্রতি পিচ বিক্রয় করা হতো ১৫ থেকে ২০ টাকা কিন্তু ভালবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে গোলাপ সহ রজনীগন্ধার স্টিক বা লাটি বিক্রয় করা হচ্ছে ৪০ টাকা থেকে ৬০ টাকা। গোলাপ বিক্রয় হয় সাধারণত ১০ টাকা থেকে ১৫ টাকা সেই গোলাপ বিক্রয় হচ্ছে ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা। আর রজনীগন্ধা বিক্রয় করা হত ৫ থেকে ১০ টাকা সেই রজনীগন্ধা বিক্রয় হচ্ছে ২০ টাকা থেকে ৩০ টাকা। ভালবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে ফুলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে কয়েকগুন।
একজন ফুল ক্রেতা জানান, কালকে ভালবাসা দিবস। ভালবাসা দিবসে যদি প্রিয় জনকে একটা গোলাপ ও রজনীগন্ধা ফুলের স্টিক হাতে দিতে না পারলে তো মানসন্মান আর থাকে না। আবার প্রেমিকার হাতে ফুল তুলে না দিলে মন খারাপ করবে। ঝগড়া করবে। তাই বাধ্য হয়েই বা ভালবসার মানুষটির জন্য ফুল কিনতে আসা। তিনি আরো বলেন, কালকে যখন ঘুড়তে যাব তখন যদি প্রেমিকের হাতে ফুল দিয়ে তাকে ভালবাসা আবার নিবেদন করব। আবার যারা কাউকে পছন্দ করে তারাও এই দিনের জন্য অপেক্ষা করছে। যে ফুল দিয়ে সেই প্রিয় মানুষটিকে ভালবাসা নিবেদন করবে। সে জন্য ফুল চাই বলে দাবী করেন। তিনি আরো দাবি করেন যে আসলেই গতবারের চেয়ে এববার ভালবাসা দিবসে ফুলের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে কয়েকগুণ।
ফুল ব্যাবসায়ী বাবু মিয়া (৬৭) জানান, ভালবাসা দিবস সিজন ভিত্তিক ফুলের ব্যাবসা করি। ভালবাসা দিবস উপলক্ষে একটা গোলাপ বিক্রয় করা হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা আর একটি রজনীগন্ধা বিক্রয় করা হচ্ছে ২০ টাকা থেকে ২৫ টাকা। কালকে দিনে এই ফুলের দাম আরো বেড়ে যাবে বলে দাবি করেন তিনি।
ফুল ব্যাবসায়ীরা জানান, আমরা সাধারণ দিন গুলোতে যে ফুল বিক্রয় করি তার চেও আজ ও কাল ফুলের চাহিদা বেশী। তাই ফুলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে কালকের দিনটা কেটে গেলে ফুলের দাম আবার স্বাভাবিক হবে বলে দাবি করেন ফুল ব্যাবসায়ীরা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

মোংলায় জীবিত হরিণসহ এক শিকারি আটক

মোঃমাসুদ পারভেজ, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ বাগেরহাটের মোংলার পশুর নদের লাউডোপ খেয়া ঘাট সংলগ্ন এলাকা থেকে …

error: Content is protected !!