‌আগামী ইউপি নির্বাচনে হাজী মো: নাসির উদ্দিনকে মেম্বার হিসাবে পেতে চায় এলাকার জনসাধারন

দেখতে দেখতে ৫ বছর পেরিয়ে দরজায় কড়া নাড়ছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। আর মাত্র কিছুদিন পরেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইউপি নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যেই দৌড়-ঝাপ শুরু করেছেন সম্ভাব্য সব প্রার্থীরা। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মতো ঢাকার কেরানীগঞ্জেও বইছে নির্বাচনের গরম হাওয়া। আগামী ইউপি নির্বাচনে কেরানীগঞ্জের অন্যতম গুরুত্বপূর্ন এলাকা জিনজিরা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী হিসাবে জোড়েসোরেই শোনা যাচ্ছে হাজী মো: নাসির উদ্দিনের নাম।

 

এলাকার জনসাধারন এক বাক্যেই আগামী নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বার হিসাবে হাজী মো: নাসির উদ্দিনকে চায়। সেক্ষেত্রে জিনজিরা ইউনিয়ন ৪ নং ওয়ার্ড মেম্বার হিসেবে আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাবেন বলে শতভাগ আশাবাদী নাসির উদ্দিন।  তাই স্থানীয় ভোটার ও সমর্থকদের পাশাপাশি নিজেকে সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী হিসেবে উপস্থাপন করছেন তিনি নিজেও। তবে দল মনোনয়ন দিলে পরেই তিনি প্রার্থী হবেন বলে জানান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এই পরীক্ষিত ত্যাগী নেতা।

 

 

জানা যায় জিনজিরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের এই নেতা  স্থানীয় রাজণীতিতে একজন জনপ্রিয় ও ত্যাগী ব্যাক্তিত্ব। জিনজিরা ইউনিয়ন ৪ নং ওয়ার্ডের সকলের আপনজন হিসেবে পরিচিত। আওয়ামীলীগের এই নিবেদিত প্রান ঢাকা-৩ এর সংসদ সদস্য বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এবং উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদের একজন পরীক্ষিত ও আস্থাভাজন হিসেবে সবসময় এলাকাবাসীর সুখ দুঃখে পাশে থেকে সফলতার সাথে তাদের সেবা করে আসছেন। তাই তিনি এলাকাবাসীর আরো কাছে থেকে এলাকার উন্নয়নে কাজ করার জন্য এবার ইউপি নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ড সদস্য পদে আওয়ামীগ মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন।

 

 

এলাকার মুরব্বী থেকে শুরু করে তরুণ ভোটার সবার মুখেই আগামী ইলেকশনে মেম্বার হিসাবে নাসির উদ্দিনের নাম শোনা যাচ্ছে। ৪ নং ওয়ার্ডের প্রতিটি আনাচে কানাচে তার পোষ্টার ফেস্টুন, ও দলমত নির্বিশেষে নাসির উদ্দিনের পক্ষে এলাকাবাসীর প্রচারনাই প্রমান করে তার জনপ্রিয়তা।

 

 

আব্দুল হাই নামে ৬০ উর্দ্ধো এক ব্যাক্তি বলেন, এলাকার যে কোন বিচারে, উন্নয়নমূলক কান্ডে, কারো বিপদে, নাসির ভাই সবার আগে থাকে। জনপ্রতিনিধি না হয়েও তিনি আমাদের এলাকার জনগনের যে সেবা করেন তা অনেক এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাও করেন না। তিনি নি:স্বার্থভাবে মনুষত্ববোধ থেকে মানুষের জন্য কাজ করেন। তাই আমরা এলাকার মুরব্বিরা চাই আগামী নির্বাচনে যেন তাকেই ৪ নং ওয়ার্ড থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়।

 

 

সিফাত হোসেন নামে এক তরুণ বলেন, আমি এবার প্রথম ভোট দিবো। আমি চাই আগামী নির্বাচনে নাসির ভাইকে মেম্বার পদে মনোনয়ন দেয়া হোক। সে মেম্বার না হয়েও এলাকার স্বার্থে জনগনের সেবায় যেভাবে কাজ করে তা অবশ্যই প্রশংসার দাবীদার। তিনি এলাকার তরুণদের আইডল । আমরা তরুণরা নাসির ভাইয়ের মানবসেবা মূলক কাজ দেখে ভালো কাজ করার অনুপ্রেরনা পাই। শুধু আমি না, আমার মতো এলাকার সকল তরুনদের একটাই চাওয়া নাসির ভাইকে আমরা মেম্বার হিসাবে দেখতে চাই।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাজী মো: নাসির উদ্দিন বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে  আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসছি। দল  আমাকে যে ভাবে নির্দেশ দিয়েছে, বিপু ভাই শাহীন ভাই যেভাবে বলেছে, সেসব নির্দেশনা মেনেই আমি সর্বদা এলাকাবাসীর কল্যানে কাজ করে যাচ্ছি। সামনের দিনগুলোতে জিনজিরা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডকে আরো উন্নত, আধুনিক করতে, এলাকা থেকে মাদক, যৌতুক, জুয়া, দুর্নীতি, বাল্য বিবাহ রোধ করতে ৪ নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থী হিসাবে সকলের সমর্থন ও দলীয় প্রধান ও নীতি নির্ধারকদের সুদৃষ্টি কামনা করছি। আমি দৃঢ় বিশ্বাস রাখি এলাকার জনগনের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটিয়ে আগামী নির্বাচনে দল আমাকে ৪ নং ওয়ার্ড মেম্বার হিসাবে  মনোনয়ন দিবেন। এবং সকলের ভালোবাসা ও সমর্থন নিয়ে ইনসা আল্লাহ আমি জয়ীও হবো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ব্যবস্থা না নিলে মার্চে মশার ঘনত্ব চরমে পৌঁছাবে

রাজধানীতে গত বছরের এই সময়ের তুলনায় মশার ঘনত্ব বেড়েছে চার গুণ। আর মশা নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ …

error: Content is protected !!