হত দরিদ্র

লালমনিরহাটে শীতে কাঁপছে হত দরিদ্র মানুষগুলো

মো:হযরত আলী (লালমনিরহাট, প্রতিনিধি)

হিমালয়ের পাদদেশ,তিস্তার কোল ঘেষা ও সিমান্তবর্তী এলকা লালমনিরহাট জেলার ৫ উপজেলার মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। প্রচণ্ড শীতে অচল হয়ে পড়ছে নদ-নদী তীরবর্তী এই জেলার হত দরিদ্র  মানুষ।

বৃষ্টির মতো গুড়ি গুড়ি পড়ছে কুয়াশা। দুই দিন ধরে মিলছে না সূর্যের দেখা। এতে কাবু হয়ে পড়ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। দেখা দিচ্ছে ঠাণ্ডাজনিত নানা রোগ ব্যাধি। মানুষজনের শীতবস্ত্রের অভাবে বাড়ছে দুর্ভোগ।


জেলার তিস্তা ও ধরলা নদীর তীরবর্তী এলাকাগুলো ঘুরে দেখা যায়, ‘হত দরিদ্র ছিন্নমূল মানুষগুলো শীতে কাঁপছে। রাতে খড় জ্বলে তাপ নিয়ে শীত থেকে রক্ষার চেষ্টা করে। কারণ শীতবস্ত্র কেনার কোন সামর্থ্য নেই তাদের।’

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার বাড়াইপাড়া গ্রামের রিক্রাচালক টুরু হক বলেন, ‘সারাদিন যা আয় হয় তা দিয়ে ৬ সদস্যের সংসার চালাতেই শেষ। তীব্র শীতে কষ্ট পেলেও শীতের কাপড় কেনার টাকা নেই।’

লালমনিরহাট বড়খাতা ইউনিয়নের কৃষক বাবু মিয়া জানান, ‘ঠাণ্ডা ও বাতাসের কারণে মাঠে কৃষি কাজ করা যাচ্ছে না।’
হাতীবান্ধা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফেরদৌস আহম্মেদ জানান, ‘চলতি শীতে হাতীবান্ধা উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ৩ শত শীত বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।’

লালমনিরহাট জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তার অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার সুজাউদ্দৌলা জানান, ‘জেলার ৪৫টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভায় শীতবস্ত্র হিসাবে এ পর্যন্ত ৩২ হাজার কম্বল বিতরণ করা হচ্ছে। দুই-একদিনের মধ্যে আরো বরাদ্দ আসবে।

আরো পড়ুন : সমাজসেবা এর উর্দ্ধতন সহ সভাপতি হলেন কে ইউ এস এর সহ সভাপতি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ত্রিশালে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় ৪ জনকে কারাদণ্ড!

রাকিবুল হাসান সুমন,ত্রিশাল ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :- ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ এবং পরিবেশের ভারসাম্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!