জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছাগল চুরির অপরাধে গ্রেফতার

মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি তুহিন দর্জি ( ৩০ ) কে ছাগল চুরির অপরাধে গ্রেফতার করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের পুরাতন ফেরিঘাট এলাকার মাদারীপুর-শিবচর আঞ্চলিক সড়কের ওপর থেকে একটি প্রাইভেটকারসহ গ্রেফতার করা হয়। তুহিন দর্জি শহরের ইটেরপুল এলাকার ও জেলা ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও ঘটমাঝি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাকির দর্জির ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি তুহিন দর্জি সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের পুরাতন ফেরিঘাট এলাকার রাস্তার পাশ থেকে লোকমান মালত নামের এক ব্যক্তির একটি ছাগল চুরি করে প্রাইভেটকারে করে নিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় স্থানীয় লোকজন চোর চোর বলে চিৎকার করে। পথিমধ্যে শিবচর থেকে একটি পুলিশের গাড়ি রাস্তা দিয়ে মাদারীপুরে আসছিল। এ সময় পুলিশের গাড়িটি প্রাইভেটকারটিকে সামনে থেকে আটকে ফেলে গাড়ির মধ্য হতে একটি ছাগলসহ জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি তুহিন দর্জিকে গ্রেফতার করে। পরে পুলিশ সাদা রংয়ের প্রাইভেটকার, ছাগলসহ তুহিন দর্জিকে থানা নিয়ে আসে।

ছাগলের মালিক লোকমান মালত বলেন, ঘাস খাওয়ার জন্য বাড়ির সাথে রাস্তার পাশে আমি ছাগলটিকে বেঁধে রাখি। হঠাৎ করে একটি সাদা প্রাইভেটকার থেকে এক লোক নেমে আমার ছাগলটিকে গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় আমরা ধাওয়া করি এবং পথিমধ্যে পুলিশ এসে প্রাইভেটকারসহ তুহিনকে ধরে ফেলে। আমি এ বিচার চাই।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জাহিদ হোসেন অনিক বলেন, আমি ছাগল চুরির ঘটনা শুনেছি । যদি এ ঘটনা সত্য হয় তা হলে আমরা তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিব।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ওসি মো. কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সোনাইমুড়ীতে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহনীর অভিযোগে থানায় মামলা

সোনাইমুড়ীতে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহনীর অভিযোগে থানায় মামল নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে এক স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগে সোনাইমুড়ী …

error: Content is protected !!