শিক্ষাঙ্গনের কিংবদন্তির বিদায়ে সেজেছে রাজশাহী কলেজ

মোফাজ্জল বিদ্যুৎ: শিক্ষাজগতের জীবন্ত কিংবদন্তি অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমানের অবসরোত্তর বিদায় উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সেজেছে রাজশাহী কলেজ। আজ বর্ণাঢ্য চাকুরি জীবন শেষে অবসরে যাবেন তিনি। এ নিয়ে রাজশাহী কলেজ শিক্ষক পরিষদ হাতে নিয়েছে নানান কর্মসূচী।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রশাসন ভবনসহ পুরো কলেজ ক্যাম্পাস সেজেছে ঝলমলে আলোয়। কলেজের প্রশাসনভবন, গ্রন্থাগার, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, হাজী মুহাম্মদ মহসিন ভবন, কলা ভবন, ফুলার ভবন, শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান ভবন ও রবীন্দ্র-নজরুল চত্বরসহ গুরুত্বপূর্ণ চত্বর সেজেছে ঝলমলে আলোয়।

এছাড়া প্রশাসন ভবনের সামনে থেকে মঞ্চ পর্যন্ত প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ চত্বরে স্থান পেয়েছে অধ্যক্ষের বিভিন্ন কর্মযজ্ঞের ফেস্টুন। সেই সাথে প্রশাসন ভবনের সামনে রয়েছে একটি বুথ। এতে অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমানের চাকরি জীবনের সফল সমাপ্তিতে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ্য লিপিবদ্ধ করা যাবে। এছাড়া কলেজের ফুলার ভবনের সামনে রয়েছে সেলফি কর্ণার।
অধ্যক্ষকে বিদায় জানাতে কলেজে মাঠে তৈরি করা হয়েছে বিশাল আকৃতির মঞ্চ। মঞ্চের দু-পাশে রয়েছে সাদা পর্দা। তাতে জায়গা পেয়েছে রাজশাহী কলেজ রিপোর্টার্স ইউনিটি, বাঁধন, বিএনসিসি, রোভার, রেঞ্জার, মিরর, অগ্নিবীনা, অন্বেষণ, ক্যারিয়ার ক্লাব, বিজনেস ক্লাবসহ কলেজের সহশিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনাকারী ৪৮টি সংগঠনের বিভিন্ন কার্যক্রমের ছবি।
মঙ্গলবার বিকেলে বিশেষ প্রয়োজনে ক্যাম্পাসে এসেছিলেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী আফসানা আফরোজ। কলেজ ক্যাম্পাসে কথা হয় তার সাথে। তিনি জানান, শিক্ষাবান্ধব ক্যাম্পাস গড়তে তৎপর অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান স্যার। এখনো কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তাঁর হাত ধরেই রাজশাহী কলেজ টানা চার বার দেশ সেরার মুকুট পরেছে। কলেজ পরিচালনার কার্যক্রমকে তিনি গতিশীল করেছেন। আমরা যদি সেই কার্যক্রমকে ধরে রাখতে চাই তাহলে স্যারের পরিপূরক একজন মানুষ দরকার। দীর্ঘ চাকরি জীবন শেষে বিদায় নিচ্ছেন অধ্যক্ষ স্যার। যদিও শুনে খারাপ লাগছে, তারপরও কিছু করার নেই। ক্ষণিকের বিদায় মেনে নিতেই হবে।

রাজশাহী কলেজ উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোহা: আব্দুল খালেক জানান, অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান তাঁর বর্ণাঢ্য কর্মজীবন শেষে আগামীকাল (আজ) বিদায় নিতে যাচ্ছেন। সেই উপলক্ষে রাজশাহী কলেজ শিক্ষক পরিষদ অধ্যক্ষকে বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করেছে। সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে শুরু হবে অনুষ্ঠানের প্রথম অধিবেশন। চলবে দেড়টা পর্যন্ত। প্রথম অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার সম্মতি দিয়েছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

 

এছাড়া অনুষ্ঠানের ২য় অধিবেশন বিকাল ৪ টা থেকে শুরু হয়ে চলবে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত।
উপাধ্যক্ষ আরও জানান, বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ অনুষ্ঠান হাতে নেয়া হয়েছে। এতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রবেশ করতে পারবে না। শুধুমাত্র কলেজের সহ-শিক্ষা কার্যক্রমের সংগঠনের শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নিতে পারবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ইবি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ নাছির উদ্দীনের নতুন বই

পল্লব আহমেদ সিয়াম, ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক …

error: Content is protected !!