গ্রাম্য শালিশে পুরুষাঙ্গে ইট বেঁধে নির্যাতন, ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

শেখ রনজু আহাম্মেদ রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার সাওরাইল ইউনিয়নের মধ্য যুগীয় কায়দায় গ্রাম্য শালিশ করে রাশেদুল ইসলাম নামে এক যুবকের পুরুষাঙ্গে ইট বেধে মাঠের চারপাশে ঘোরানোর অভিযোগ উঠেছে।

 

এ ঘটনায় ওই যুবক গুরুত্ব অসুস্ত্য ও রক্তক্ষরন হলে তাকে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে মামলা দায়েরের পর শালিশের মাতুব্বর স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মামলা সুত্রে জানাযায়, কালুখালী উপজেলার সাওরাইল ইউনিয়নের ইমান আলী শেখের ছেলে রাশেদুল ইসলাম। ব্যক্তিগত জীবনে তার তিন সন্তান রয়েছে। রাশেদুলের স্ত্রী মাহফুজা খাতুন তার স্বামীর বিরুদ্ধে পরকিয়ার অভিযোগ এনে সাওরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলীর কাছে বিচার চাইলে গত রবিবার বিকেলে পাতুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তিনি রাশেদুলের পুরুষাঙ্গে ইট বেধে মাঠ প্রদক্ষিনের নির্দেশ দেন।

 

নির্দেশ প্রদানের সাথে সাথে তার পুরুষাঙ্গে ইটবেধে মাঠের চারপাশ ঘোরানো হলে রাশেদুলের পুরুষাঙ্গ দিয়ে রক্তক্ষন হতে থাকে ও গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পরে । এ সময় তাকে মামলা মোকাদ্দমা না করার হুমকি প্রদান করেন শালিশকারীরা। বাড়ি ফেরার পর তিনি আরো বেশি অসুস্থ্য হয়ে পরলে তাকে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

কালুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাসুদুর রহমান জানান, ওই ঘটনায় রাশেদুলের বাবা ইমান আলী শেখ বাদী হয়ে কালুখালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলী, ইউসুফ হোসেন, নাজিরুল শেখ, জিরু মৃধা, রায়হান মন্ডল, চিকু, ও জাকির হোসেনসহ আরো অজ্ঞাত ৫ থেকে ৬ জনকে আসামী করা হয়েছে। অভিযান চালিয়ে সাওরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলীসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সদরঘাটে পা পিছলে পুলিশের এসআই’র মৃত্যু

ঢাকার সদরঘাটে টার্মিনালের পল্টুন থেকে পা পিছলে নদীতে পড়ে পুলিশের এক এসআই’র মৃত্যু হয়েছে। নিহত …

error: Content is protected !!