কাঙ্ক্ষিত সেবা মিলছে না ইবি মেডিকেলে

পল্লব সিয়াম, ইবি করেসপন্ডেন্ট: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টার ১৯৯৫ সালে চালু হয়। মেডিকেল সেন্টার সপ্তাহে ৭ দিন ২৪ ঘন্টা খোলা থাকলেও কাঙ্ক্ষিত সেবা পাচ্ছে না অভিযোগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের। অপ্রতুল চিকিৎসক, ওষুধের সংকট, প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষার সুযোগ না থাকা, কর্মকর্তাদের অসৌজন্যমূলক ব্যবহারসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টার।

আবাসিক সুবিধা নিশ্চিত না করে করোনা মহামারীর কারনে বিভিন্ন বিভাগের আটকে থাকা চূড়ান্ত পরীক্ষা নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শিক্ষার্থীরা বাধ্য হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে এবং কুষ্টিয়া শহরে মেস ভাড়া নিতে বাধ্য হন।

বুধবার রাত সাড়ে দশটার দিকে কম্পিউটার এন্ড সাইন্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মাস্টার্সের সাইফুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হলে, কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান কোভিডের কারনে ছাত্রদের জন্য এখনো কোনো চিকিৎসা সেবা চালু নেই। আপাতত কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষকদের চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে।

তাৎক্ষণিক চিকিৎসা না দেওয়ায় উক্ত শিক্ষার্থী আরও মারাত্মক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস নেওয়ার জন্য প্রক্টর প্রফেসর জাহাঙ্গীর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শিক্ষার্থী যেহেতু বাহিরে রয়েছে এজন্য আমরা অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস দিতে পারব না বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে অবস্থান করলে আমরা সেটা ভেবে দেখতাম। তারপরও বিষয়টি দেখতেছি আমি। পরবর্তী ফোন দেয়া হলে তিনি আর ফোন রিসিভ করেন নি।

রোগীকে নিয়ে ভিবিন্ন জায়গায় সময়ক্ষেপণ করার কারনে শরীরের অবস্থা আরো অবনতি হয় রাত্রি প্রায় বারোটার দিকে ট্রিপল নাইনে (৯৯৯) ফোন করে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের ব্যবস্থা করা হয়। তৎক্ষণাৎ কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্স যোগে নিয়ে যাওয়া হয় সাইফুল ইসলামকে।

সাইফুল ইসলাম অসুস্থ শুনে তার সহপাঠীরা বিশ্ববিদ্যালয় মেইন গেটে জরো হয়। উপস্থিত শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, এমন খারাপ পরিস্থিতি আমাদেরকে মোকাবেলা করতে হবে এটা আমরা কখনোই ভাবিনি। আমরাও তো এমন মারাত্মকভাবে অসুস্থ হতে পারি আমাদেরকেও খারাপ অবস্থার মুখোমুখি হতে হবে। আমাদের মধ্যে আজ না হয় কাল অনেকেই অসুস্থ হতে পারে কিন্তু তাদের জন্য কি কোন চিকিৎসা ব্যবস্থা থাকবে না বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে। মহামারিতে পরীক্ষা নিচ্ছে, ফি নিচ্ছে, কিন্তু সেবা দিবে না এটা বেমানান না! শিক্ষার্থীরা ইবি মেডিকেলে শিক্ষার্থীদের জন্যে চিকিৎসাসেবা দ্রুত চালুর জন্য দাবি জানান প্রশাসনের কাছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, আমি খুবই হতাশাগ্রস্ত হয়ে গেছি যে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হয়ে আমাদের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করা হল কিন্তু কোনো চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা নেই এটা খুবই দুঃখজনক বিষয়।

এ বিষয়ে প্রক্টর প্রফেসর জাহাঙ্গীর হোসেনে সাথে মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তার মুঠোফোনটিতে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

‘বিশ্ববিদ্যালয়ের নিম্নবিত্ত, গরীব শিক্ষার্থীদের বিষ দিন’

জবি প্রতিনিধি: ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের নিম্নবিত্ত, গরীব শিক্ষার্থীদের বিষ দিন। আমরা বিষ খেয়ে মরে যাই। আমাদের পরিবার …

error: Content is protected !!