ভুঞাপুর পৌর নির্বাচনে নৌকার কাঁটা স্বতন্ত্র, জিততে মরিয়া বিএনপি

নাসির উদ্দিন,টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

তৃতীয় ধাপে ৩০ শে জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ভূঞাপুর পৌরসভার নির্বাচন। প্রতীক পেয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন তারা। ভোর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনা করছেন প্রার্থীরা। চলছে মিটিং মিছিল ও পথসভা। তুলে ধরছেন নিজেদের অবস্থান। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

এ পৌরসভায় মেয়র পদে লড়াইয়ে তিনজন প্রার্থী মাঠে নেমেছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুদুল হক মাসুদ (নৌকা), বিএনপি মনোনীত পৌর বিএনপির সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (ধানের শীষ) এবং স্বতন্ত্র (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সাত্তার।
পৌরসভাটি আওয়ামী লীগের দুর্গ হিসেবে বিবেচিত আওয়ামী সমর্থিতদের কাছে। এখানে টানা দুইবার মেয়র নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুদুল হক মাসুদ। এবারও তিনি দলীয় টিকিটে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। দলীয় নেতাকর্মীরা তার পক্ষে মাঠে নেমেছেন। তুলে ধরছেন উন্নয়নের নানা দিক। স্থানীয় সংসদ সদস্য ছোট মনিরের উন্নয়নের ছোঁয়ায় পাল্টেও গেছে এ পৌরসভার চিত্র। তবে পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সাত্তার দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় কিছুটা বেকায়দায় পড়েছেন মাসুদুল হক মাসুদ এবং আওয়ামী লীগের বিশাল একটি অংশ নীরব ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। আবার অনেককেই দেখা গেছে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে প্রকাশ্যে নির্বাচনী প্রচারণায়।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় এ সুযোগকে কাজে লাগাতে চাচ্ছে বিএনপি। কেন্দ্রীয় যুব দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু মনোনয়নপত্র জমা দেয়া থেকে শুরু করে সার্বক্ষনিক মনিটরিং করে যাচ্ছেন। এছাড়া একক প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

পৌরসভার নয় নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার নাজমুল হাসান বলেন, এ ওয়ার্ডে ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও রাস্তাঘাটের ব্যাপক সমস্যা রয়েছে। যিনি এ সমস্ত সমস্যার সমাধানে কাজ করবেন আমরা তাকেই ভোট দেব। পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার মাহমুদুল হাসান বলেন, এ ওয়ার্ডে রাস্তাঘাটের সমস্যা রয়েছে। যিনি পৌরসভার উন্নয়নে কাজ করবেন আমরা তাকেই মেয়র হিসবে বেছে নেব।
সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, বর্তমানে পৌরসভার বিশৃঙ্খল অবস্থা। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে পৌর এলাকার প্রধান সমস্যা ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ একটি আধুনিক পৌরসভা গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করবো।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুদুল হক মাসুদ বলেন, মেয়র হিসেবে আমার মেয়াদকালে রাস্তাঘাটসহ পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। ভূঞাপুরবাসীর প্রাণের দাবি বাসস্ট্যান্ড নির্মাণ করেছি। দলীয় নেতা-কর্মীসহ সাধারণ ভোটারদের ব্যাপক সারা রয়েছে। আশা করি টানা তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হবো ইনশাআল্লাহ। আর মেয়র নির্বাচিত হলে ড্রেনেজ সমস্যা সমাধান, সাপ্লাই পানির ব্যবস্থাসহ অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করবো।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ভূঞাপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সাত্তার বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে অনেকটা শঙ্কায় রয়েছি। সাধারণ ভোটারদের ব্যাপক সাড়া রয়েছে আমার পক্ষে। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে ভূঞাপুর পৌরসভাকে একটি দুর্নীতিমুক্ত পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবো। মেয়র প্রার্থী ছাড়াও ৯টি ওয়ার্ডে ৩০ জন কাউন্সিলর ও ১১ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

টাঙ্গাইলের সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার এইচএম কামরুল ইসলাম বলেন, এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ২১ হাজার ৭২৯ জন। এর মধ্যে মহিলা ভোটার ১০ হাজার ৮৮৪ জন। ১০টি কেন্দ্রে ৫৭টি ভোট কক্ষে এসব ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ফরহাদনগর আ’লীগে তৃণমূলে আস্থার প্রতীক যুবলীগ নেতা কাউসার

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেনী সদর উপজেলার ফরহাদনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর তৃণমূল নেতাকর্মীদের আস্থা ও …

error: Content is protected !!