মোংলা পৌরসভায় আ.লীগের প্রার্থীর বিজয়

মোঃমাসুদ পারভেজ, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ-বাগেরহাটের মোংলা পোর্ট পৌরসভার আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোংলা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান বিশাল ব্যবধানে বিজয় লাভ করেছে।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বাগেরহাটের মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে ।সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ শেষে কেন্দ্রে কেন্দ্রে ফলাফল গণনা শেষ হইছে।এখানে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হয়।

রিটার্নিং অফিসার ফারাজী বেনজীর আহম্মেদ জানান, মোংলা পোর্ট পৌরসভা নির্বাচনে বেসরকারিভাবে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান নির্বাচিত হয়েছেন। নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট হচ্ছে ১২ হাজার ১শ ২৫ ভোট।তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপি মনোনীত ধানের শিষ প্রতীকের প্রার্থী মোঃ জুলফিকার আলী। ধানের শিষ প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৫শ ৯২ ভোট।

নির্বাচিত সাধারণ আসনের কাউন্সিলররা হচ্ছে এস এম কবীর হোসেন (১নং ওয়ার্ড), এইচ এম শরিফুল ইসলাম (২নং ওয়ার্ড), মোঃ বাহাদুর মিয়া (৩নং ওয়ার্ড), শফিকুর রহমান খান (৪নং ওয়ার্ড), শরিফুল ইসলাম শরিফ (৫নং ওয়ার্ড), জি এম আলামীন (৬নং ওয়ার্ড), হুমায়ুন হামিদ নাসির (৭নং ওয়ার্ড), ছরোয়ার হোসেন (৮নং ওয়ার্ড) ও মজনু গাজী (৯নং ওয়ার্ড)।

সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচিত কাউন্সিলররা হচ্ছে জাহানারা হোসেন চানু (১,২,৩), জোহরা বেগম (৪,৫,৬) এবং শিউলি আকন (৭,৮,৯)।

নির্বাচনে ১২টি কেন্দ্রে মোট বৈধ ভোটের সংখ্যা ১২ হাজার ৭শ ৫০ ভোট। বাতিলকৃত ভোটের সংখ্যা ০৫ ভোট। সর্বমোট প্রদত্ত ভোটের সংখ্যা ১২ হাজার ৭শ ৫৫ ভোট। কাস্টিং ভোট পড়েছে ৪০.৫০%।

বিএনপি মনোনীত ধানের শিষ প্রতীকের প্রার্থী মোঃ জুলফিকার আলী কেন্দ্র দখল, এজেন্ট ঢুকতে না দেওয়া এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে সকাল ১১টার দিকে মাদ্রাসা রোডস্থ তার নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

বিএনপির মেয়র প্রার্থীর অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান বলেন অবাধ-সুষ্ঠু-শান্তিপূর্ণ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হয়েছে। বিচ্ছিন্ন ২/১টি ঘটনা ঘটেছে। তার বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

জুলফিকার আলীর অভিযোগের বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার ফারাজী বেনজীর আহম্মেদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেয়র প্রার্থী মোঃ জুলফিকার আলী সকাল থেকে বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে ২/১টি কেন্দ্রের দিকে নজর দিতে বলেন। তার কথা মোতাবেক আমি সাথে সাথে ব্যবস্থা নিই। অধিক সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করি। বড় ধরনের অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা নেই। শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে।

মোংলা উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন ভোট সুষ্ঠ হয়েছে দাবি করে বলেন, সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ইভিএমে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটাররা তাদের ভোট প্রদান করেন।

এ নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করার লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন র‌্যাবের তিনটি টিম, কোস্টগার্ড , ডিবি, পুলিশ সদস্য, আনসার বাহিনী ও ১২ টি কেন্দ্রে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ছিলেন।

দীর্ঘ ১০ বছর পর অনুষ্ঠিত হয়েছে মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচন। এতে মেয়র পদে ৩ জন, সাধারন কাউন্সিলর পদে ৩৫ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। মোংলা পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৩১ হাজার ৫২৮ জন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

টানা চারবারের মত বাগেরহাট পৌরসভার মেয়র হলেন হাবিবুর রহমান

মোঃমাসুদ পারভেজ, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ-টানা চতুর্থ বারের মত বাগেরহাট পৌরসভার মেয়র হলেন আওয়ামী লীগের খান …

error: Content is protected !!