সঠিক বিচার পাওয়া দেশের প্রতিটি নাগরিকের অধিকার : প্রধানমন্ত্রী

মাননীয় দেশ নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নেয্য বিচার  পাওয়া প্রতিটি মানুষের সাংবিধানিক অধিকার। ধর্ম, বর্ণ, লিঙ্গ, সামাজিক বৈষম্য কিংবা দরিদ্রতার কারণে যো কাউকে তার নেয্য বিচার পাবার হক থেকে বঞ্চিত করা যাবে না।

‘জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস’ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার দেয়া তার এক বানীতে তিনি এ কথা বলেন । উল্লেখ্য ২৮ এপ্রিল ‘জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস’। অন্যান্য বছরের  মতো এবারও বাংলাদেশে দিবসটি পালিত হচ্ছে।

বাণীতে দেশ রত্ন শেখ হাসিনা আরো উল্লেখ করেন, আজ দেশের বিচার বিভাগ পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করছে। দেশের প্রতিটি নাগরিক আইনের সমান আশ্রয় লাভ করছেন।

তাছাড়া আইনি সেবা জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন আইনী সংস্থা, বিভিন্ন  আন্তর্জাতিক সংগঠন, সুশীল সমাজ ও মিডিয়া আরও বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে বলে আশা বাদ  ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেশ নেত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহব্বানে সাড়া দিয়ে জাতীয় মুক্তির জন্য ঐতিহাসিক সংগ্রামের মাধ্যমে আমরা অর্জন করি মহান স্বাধীনতা। যার অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য   ছিল শোষণমুক্ত গণতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করা , সকল নাগরিকের জন্য সমস্ত অধিকার  এবং স্বাধীনতা ও সুবিচার নিশ্চিত করা।

শেখ হাসিনা  আরো বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করার  মাধ্যমে দেশের আইনের শাসন এবং মৌলিক অধিকার নষ্ট হয় । দেশের ইতিহাসে নেমে আসে কলংঙ্কীত কালো অধ্যায় । ’৭৫ পরবর্তী সামরিক সরকার এবং বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের হত্যা, দমন, নির্যাতন ও নিপীড়নের কারণে সুবিচারের পথ বন্ধ হয়ে যায় । দেশের জনগন আইনের শাসন এবং সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে যায়।

শেখ হাসিনা  আরও বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যখনই সরকার গঠন করেছে তখনই জাতির পিতার প্রদর্শিত পথে দেশে আইনের শাসনকে সমুন্নত রেখেছে। বিচারহীনতার সংস্কৃতিকে বন্ধ ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করেছে এবং প্রতিনিয়ত করে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, আর্থিকভাবে অসচ্ছল ও নানাবিধ আর্থ-সামাজিক কারণে দেশের কোনো নাগরিক যেন ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত না হয় সে লক্ষ্যে তার সরকার ২০০০ সালে ‘আইনগত সহায়তা প্রদান আইন’ পাশ করে। গেজেট প্রজ্ঞাপন দ্বারা ২৮ এপ্রিলকে ‘জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

দেশ নেত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আইনগত সহায়তা প্রদান’ আইনের আওতায় আমরা সারাদেশে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন লিগ্যাল এইড কমিটির মাধ্যমে অসহায়, দরিদ্র ও নিঃস্ব জনগণকে বিনা খরচে আইনগত পরামর্শ ও সহযোগিতা  দিয়ে যাচ্ছি। জেলা লিগ্যাল এইড অফিসের মধ্যস্থতায় আপস মিমাংসার মাধ্যমে মামলা বা বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ফলে মামলা জটের কবল থেকে বিচার বিভাগ কিছুটা হলেও ভারমুক্ত হয়েছে।

 

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

রাজবাড়ীতে ‘শিশুর জীবন সুরক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নে সাঁতার প্রশিক্ষণ’ কর্মসূচীর শোভাযাত্রা

  শেখ রনজু আহাম্মেদ, রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ ‘শিশুকে সাঁতার শেখান, পানিতে নিরাপদ রাখুন’-স্লোগানকে সামনে রেখে রাজবাড়ীতে …

15 comments

  1. I loved as much as you’ll receive carried out right here. The sketch is attractive, your authored material stylish. nonetheless, you command get bought an edginess over that you wish be delivering the following. unwell unquestionably come more formerly again since exactly the same nearly very often inside case you shield this increase.|

  2. Hello very nice web site!! Man .. Excellent .. Amazing .. I will bookmark your website and take the feeds also? I am glad to search out numerous helpful info here in the publish, we’d like develop extra strategies on this regard, thank you for sharing. . . . . .|

  3. Fabulous, what a blog it is! This weblog gives valuable information to us, keep it up.|

  4. purchase tadalafil – buy tadalafil tadalafil prices

  5. I truly love your website.. Very nice colors & theme. Did you build this web site yourself? Please reply back as I’m wanting to create my very own website and would love to find out where you got this from or exactly what the theme is named. Appreciate it!|

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!