শেষ ঠিকানা | কবিতা

শেষ ঠিকানা
রোকসানা মোর্তজা

সুখ -দু:খের যুগল খেলায় বেলায়, বেলায়,

কবে যেন পেরিয়ে গিয়েছে লক্ষ্যহীন পথের অনেকটা সময়।

ভাবিনি কখনও এ পথের শেষ কোথায়?

কষ্টের অর্জনে সাজিয়েছি শুধু সুখের স্বর্গ ঘর,
বুঝিনি কখনও এরাই আমায় এভাবে করবে পর।

কত যতনে সাজানো ঘরের মখমলের বিছানা ফেলে,
প্রান পাখি আজ উড়েছে বলে,
রাখলি মাটির কোলে।

অন্ধকার এই মাটির ঘরে নেই যে কোন বাতি,
শুধুমাত্র বিছিয়ে তাতে বাঁশের একটা পাটি,
এমনি করে ফেলে গেলি করে কান্নাকাটি।

কত করে ডাকলাম তোদের চাইলি না তো ফিরে..!
অন্ধকারে সাপ, বিচ্ছুরা ফেলছে আমায় ঘিরে।

কিভাবে আজ লড়বো একা অস্ত্র কিছুই নেই,
পূর্ণের ঝুড়ি হাতরে মরি ফাঁকা সবই ফাঁকা।
সোনার বর্ন অঙ্গ যে আজ মাটির সাথে মেশে।

মর্তের এই মাটিতে শুয়ে ডাকছি তাদের কত,
কিন্তু সবাই, যে যার সুখের ধান্দায় ছুটছে অবিরত।

তিলে তিলে জমানো সম্পদ রেখেছি যে ব্যাংক ভরে,
তবুও আমি আজ নি:স্ব একা অন্ধকার এ ঘরে।

অসহায় হয়ে আমি আজ ভাবছি বারে বারে,
একটি বারের জন্যও যদি পেতাম জীবন ফিরে,
তবে, বোকার মত ছুটতাম না আর ক্ষনিক সুখের তরে।

জাগতিক জীবনের ক্ষনিক মহে অন্ধ নাহি থেকে,
নুরের পথে চলতাম শুধু দয়াময়ের নাম ডেকে।

আর সযত্নে ভরতাম আমার সকল পূর্নের ঝুড়ি…।
আমি প্রভুর অবুঝ বান্দা,
দুনিয়ার প্রেমেই ছিলাম যে আন্ধা।

ভাবিনি এ কথা মাটির অন্ধকার ঘরই হবে শেষ ঠিকানা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

আজ বসন্ত | কবিতা

আজ বসন্ত! বায়েজীদ শিকদার রাহাত পায়ে দিয়ে মল,রাঙা টিপ কপালে । সাজ গোজ হয় শুরু …

error: Content is protected !!