শীতে ঠোঁট ফেটে ঘা হলে করণীয়

মুহাম্মদ রায়হান আদনানঃ

শীতের রুক্ষ-শুষ্কভাব প্রকৃতির পাশাপাশি আমাদের ত্বকেও প্রভাব ফেলে। বিশেষ করে ত্বক শুষ্ক হয়ে ফেটে যাওয়া অন্যতম সমস্যা এই সময়। অনেকের দেখা যায় গাল এবং ঠোঁট ফেটে রক্তও বের হয়ে যায়। যা খুবই কষ্টদায়ক এবং অস্বস্তিরও বটে।

শীতে অনেকেরই ঠোঁট লাল হয়ে ফেটে যায়। আবার মুখের বা ঠোঁটের দুই কোণায় ঘা হয়ে সাদা হয়ে যায়। হা করতে কষ্ট হয়। ফুলে যায়,ব্যথা হয়। দেখতেও খারাপ লাগে। সেই সঙ্গে খাবার খাওয়াও কষ্টকর হয়ে পড়ে।
ঠোঁট ফাটলে অনেক সময় ত্বকের মরা অংশ জমে ঠোঁটের ওপর। এটা বন্ধ করতে রাতে ঘুমানোর সময় বাদাম তেল লাগাতে হবে ঠোঁটে। মরা অংশ কোনো অবস্থাতেই টেনে তোলা যাবে না। ঠোঁট ভেজাতে জিব দিয়ে কখনো চাটবেন না। মুখের লালায় যে রাসায়নিক উপাদান থাকে, তা ঠোঁটকে আরো শুষ্ক করে তোলে।
🔴জেনে নিন কীভাবে ঘা প্রতিরোধ এবং দূর করবেন-

💠পুরো শীতে গোলাপের পাপড়ির মতো ঠোঁটের কোমলতা ধরে রাখতে আজ থেকেই আমাদের যত্ন নিতে হবে। ঠোঁট মসৃণ করতে দুধের সর, মধু ও চিনি দিয়ে প্রতিদিন মাত্র দুই মিনিট ম্যাসাজ করুন। পাবেন চমৎকার ফল।

💠শরীর আর্দ্র থাকলে ঠোঁটও শুষ্ক হবে না। এজন্য প্রতিদিন অন্তত ৮ গ্লাস পানি পান করুন।

💠 ঠোঁট শুষ্ক লাগলে কখনোই জিভ দিয়ে ভেজাবেন না, সঙ্গে লিপবাম রাখুন। কয়েকঘণ্টা পরপর ঠোঁটে লাগিয়ে নিন।

💠ভিটামিন সি সমৃদ্ধ লেবু, জলপাই, আনারস, স্ট্রবেরি, টমেটো, ব্রকলি, সবুজ শাক সবজিসহ সব সময় সহজপাচ্য ও হালকা মশলাযুক্ত স্বাস্থ্যকর খাবার খান। নিয়মিত খেজুর, বাদাম, দুধ বেশি বেশি খান। এতে করে ত্বকের শুষ্কতা দূর হবে। ফলে ঠোঁট ফাটাও রোধ করা যাবে।

💠 ভিটামিন সি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং দেহ ও ত্বকের কোষের ক্ষতিরোধ করে। তাছাড়া টিস্যুর গঠন ও ক্ষতস্থানের আরোগ্য লাভেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এ পুষ্টি উপাদান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

জবি শিক্ষার্থী নাঈম রাজ এর কবিতা ‘রক্তিম শালুক’

রক্তিম শালুক -নাঈম রাজ বেদুঈনের পাখনায় নৃত্যরত বেদেপদ্ম মরুভূমির চিকি চিকি বালিকনা ঝিকিমিকি মরিচা শিবের …

error: Content is protected !!